Main Menu

নতুন অর্থবছরে ২৬ হাজার কোটি টাকার কৃষি ঋণ বিতরণের লক্ষ্য

চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরে কৃষি ও পল্লী খাতে ২৬ হাজার ২৯২ কোটি টাকা ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সদ্য বিদায়ী (২০১৯-২০) অর্থবছরে এই খাতে ২৪ হাজার ১২৪ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়েছিল। ফলে চলতি অর্থবছরে লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৮ দশমিক ৯৯ শতাংশ বেশি। অন্যদিকে, গত অর্থবছরে এই খাতে ঋণ বিতরণ হয়েছিল ২২ হাজার ৭৪৯ কোটি টাকা। সে হিসাবে গত অর্থবছরে বিতরণ করা ঋণের চেয়ে এ বছর ১৫ দশমিক ৫৭ শতাংশ বেশি ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

বুধবার (২২ জুলাই) নতুন ২০২০-২১ অর্থবছরের জন্য কৃ‌ষি ও পল্লী ঋণের এ নীতিমালা ও কর্মসূচি প্রণয়ন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষি ঋণ বিভাগ। নীতিমালা অনুযায়ী লক্ষ্যমাত্রার ১১ হাজার ৪৫ কোটি টাকা রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ও বিশেষায়িত ব্যাংক এবং বাকি ১৫ হাজার ২৪৭ কোটি টাকা বেসরকারি ও বিদেশি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো বিতরণ করবে।

কৃষিঋণ নীতিমালায় বলা হয়েছে, করোনা মহামাররির আর্থিক সংকট মোকাবিলায় এবং সরকারের কৃষি ও কৃষিবান্ধব নীতির সঙ্গে সঙ্গতি রেখে টেকসই উন্নয়নের নির্ধারিত লক্ষ্যের প্রথম ও প্রধান তিনটি লক্ষ্য— দারিদ্র্য বিমোচন, ক্ষুধা মুক্তি ও গ্রামীণ অর্থনীতির উন্নয়নের উদ্দেশ্যে পল্লী অঞ্চলে ব্যাপক হারে কৃষি ঋণ প্রবাহ বাড়ানো হবে। এর মাধ্যমে কৃষি উৎপাদন বাড়াতে বাংলাদেশ ব্যাংকের কৃষিঋণ বিভাগ থেকে ২০২০-২১ অর্থবছরের কৃষি ও পল্লী ঋণ নীতিমালা ও কর্মসূচি প্রণয়ন করা হয়েছে।

নীতিমালায় নতুন অর্থবছরে (২০২০-২১) কৃষি ও পল্লী খাতে ২৬ হাজার ২৯২ কোটি টাকা বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। নীতিমালা অনুযায়ী কৃষি ঋণের প্রধান তিনটি খাতকে (শস্য, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ) অন্যান্য খাতের তুলনায় অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। শস্য খাতে মোট লক্ষ্যমাত্রার ন্যূনতম ৬০ ভাগ, মৎস্য খাতে ১০ ভাগ এবং প্রাণিসম্পদ খাতে লক্ষ্যমাত্রা ন্যূনতম ১০ ভাগ বিতরণ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সদ্য সমাপ্ত (২০১৯-২০) অর্থবছরে কৃষকদের জন্য ২৪ হাজার ১২৪ কোটি টাকা ঋণ বরাদ্দ রেখেছিল ব্যাংকগুলো। গত অর্থবছর শেষে এ খাতের ঋণ বিতরণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২২ হাজার ৭৪৯ কোটি টাকা। এটি ঋণ বিতরণ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫ দশমিক ৬৯ শতাংশ বা এক হাজার ৩৭৫ কোটি টাকা কম।






Related News