Main Menu

ভারী বৃষ্টি চলবে আরও দুই দিন

প্রবল মৌসুমি বায়ুর সক্রিয়তার কারণে প্রায় সারাদেশেই ঝড়ো হাওয়াসহ ভারী বৃষ্টি হচ্ছে। শনিবার (১৮ জুলাই) থেকে শুরু হওয়া এই ভারী বৃষ্টি কমে আসতে পারে আগামী বৃহস্পতিবারের (২৩ জুলাই) পর। তবে আকাশ পুরো পরিষ্কার হতে সময় লাগতে পারে আরও দুই দিন, আগামী ২৫ জুলাই শনিবার পর্যন্ত। এদিকে এই আবহাওয়ার কারণে সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত এবং নদীবন্দরে ১ নম্বর সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ শাহনাজ সুলতানা বলেন, ‘মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে এই ভারী বৃষ্টি হচ্ছে। আগামী ২৩ জুলাই পর্যন্ত ভারী বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে। দেশের প্রায় সব অঞ্চলেই এই বৃষ্টি হচ্ছে। তবে উত্তরাঞ্চল ও উত্তর পূর্বাঞ্চলে বৃষ্টির পরিমাণ বেশি হচ্ছে। ২৩ জুলাইয়ের পর বৃষ্টির পরিমাণ কমে আসবে। তবে পুরোপুরি আকাশ পরিষ্কার হতে ২৫ জুলাই পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।’

এক সতর্কবার্তায় বলা হয়, ‘সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।
আজ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্কতা  সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

পূর্বাভাসে বলা হয়, মৌসুমি বায়ুর অক্ষ পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, হিমালয়ের পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে প্রবল অবস্থায় বিরাজ করছে।

একই কারণে রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক জানান, সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট এবং চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী, অর্থাৎ ৪৪ থেকে ৮৮ মিলিমিটার থেকে অতিভারী অর্থাৎ ৮৯ মিলিমিটারের ওপরে বর্র্ষণ হতে পারে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে তাড়াশে ১২২ মিলিমিটার। এছাড়া ঢাকায় ৮৭, ময়মনসিংহে ৩৮, চট্টগ্রামে ৪৩, সিলেটে ২৪, রাজশাহীতে ৩৬, রংপুরে ১৮, খুলনায় ৫ এবং বরিশালে ৬২ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে।






Related News