Main Menu

অনলাইন শিক্ষার স্থায়ী প্লাটফর্ম জরুরি

করোনাভাইরাস যেমন মানবজীবনকে বাধাগ্রস্ত করেছে, তেমনি তা শিক্ষাব্যবস্থার ক্ষেত্রে অনলাইন সম্ভাবনার দ্বার খুলে দিয়েছে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উচিত এর সর্বোচ্চ ব্যবহার করা। পাশাপাশি শুধু করোনাকাল নয়, অনলাইন শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালনায় বাংলাদেশসহ গোটা বিশ্বের জন্য স্থায়ী প্লাটফর্ম প্রতিষ্ঠা করা জরুরি।

মঙ্গলবার ফাউন্ডেশন ফর লার্নি টিচিং অ্যান্ড রিসার্চের (এফএলটিআর) উদ্যোগে ‘মুভিং ফ্রম ক্লাসরুম টু অব-ক্যাম্পাস টিচিং: হোপ, এক্সপেক্টেশন্স অ্যান্ড ওয়ে ফরওয়ার্ড’ শীর্ষক এক অনলাইন সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন।

ইউনিভার্সিটি সেইনস ইসলাম মালয়েশিয়া’র ওপেন অ্যান্ড ডিসট্যান্স লার্নিংয়ের প্রফেসর ড. রোজান এম ইদ্রুস এতে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। বক্তব্য রাখেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. সৈয়দ সাদ আন্দালিব, ইউল্যাব বোর্ড অব ট্রাস্টিজের বিশেষ উপদেষ্টা ও ইউল্যাব স্কুল অব বিজনেসের ডিন প্রফেসর ইমরান রহমান এবং ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন গ্রিন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, গোটা বিশ্বে আজ নতুন পরিস্থিতি বিরাজ করছে। পরিবর্তিত এই অবস্থার সঙ্গে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদেরও মানিয়ে নিতে হবে। অনলাইন শিক্ষার সীমাবদ্ধতা নেই, দেশ কিংবা বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকে শিক্ষার্থীরা অনলাইনে শিক্ষা নিতে পারে।

সেমিনারের মূল প্রবন্ধে প্রফেসর রোজান এম ইদ্রুস বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যমতে আগামী দুই বছরেও করোনা পরিস্থিতি পুরোপুরি স্বাভাবিক হবে না। তাই এই অবস্থার সঙ্গে নিজেদেরকেই মানিয়ে নিয়ে অনলাইন শিক্ষাকার্যক্রম চালাতে হবে।

তিনি বলেন, আগে ক্লাসরুমে পাঠদান চলত, এখন অনলাইন প্লাটফর্মে চলবে। এটাকে ‘নিউ নরমাল’ ধরেই অনলাইন টিচিং-লার্নিয়ের সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে হবে।

রফেসর ড. সৈয়দ সাদ আন্দালিব বলেন, অনলাইন শিক্ষা সবসময়ের; এটা শুধু করোনা পরিস্থিতির কারণে নয়। তিনি অনলাইন শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালনায় একটি স্থায়ী প্লাটফর্ম প্রতিষ্ঠার ওপর জোর দেন।

সেমিনারে অনলাইন শিক্ষাকার্যক্রমের চ্যালেঞ্জ ও প্রত্যাশা সংক্রান্ত নানা দিক নিয়ে আলোচনা করেন প্রফেসর ইমরান রহমান ও প্রফেসর ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম।

গ্রিন ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির বলেন, শিক্ষার ধারণা সার্বজনীন। এটা গণ্ডি যেমন নির্দিষ্ট কোনো প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়, তেমনি এর স্বরূপও অফলাইন-অনলাইন বিবেচ্য নয়। অনলাইন শিক্ষার ক্ষেত্রে এই দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করতে হবে। তবেই শিক্ষার নতুন নতুন দ্বার উন্মোচিত






Related News