Main Menu

কুয়েতের আমির হাসপাতালে, মসনদে বসেছেন ক্রাউন প্রিন্স

কুয়েত সরকার নিয়ন্ত্রিত সংবাদ সংস্থা কেইউএনএ বরার দিয়ে শনিবার বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন কুয়েতের বর্ষীয়ান আমির শেখ সাবাহ আল-আহমেদ আল-সাবাহ। বর্তমান পরিস্থিতিতে ‘আংশিক শাসক’ হিসেবে দেশটির ক্ষমতার মসনদে বসেছেন ক্রাউন প্রিন্স শেখ নাওয়াফ আল-আহমেদ আল-সাবাহ। তবে আমির কী অসুস্থতায় ভুগছেন তা জানানো হয়নি।

সরকার প্রধান আমিরের এক সৎভাইয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে কেইউএনএ’র খবরে বলা হয়েছে, “ক্রাউন প্রিন্স শেখ নাওয়াফ আল-আহমেদ আল-সাবাহ আপাতত আমিরের নির্দিষ্ট কিছু দায়-দায়িত্ব পালন করবেন।”

ক্রাউন প্রিন্স ৮৩ বছর বয়সী শেখ নাওয়াফ আমির শেখ সাবাহর সৎ ভাই। কুয়েতের প্রতিরক্ষা ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে কয়েক দশক ধরে দায়িত্ব পালন করছেন কুয়েত সরকারের জ্যেষ্ঠ এই মুখপাত্র।

এর আগে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, আমিরকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। সেখানে তার কিছু ডাক্তারি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে।

অনেক দিন ধরে নানা ধরনের শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন আমির শেখ সাবাহ। ২০০২ সালে তার অ্যাপেন্ডিক্স অপসারণ করা হয়। এর দুই বছর পর তার হার্টে একটি পেস মেকার প্রতিস্থাপন করা হয়। ২০০৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে মূত্র নালিতে অস্ত্রোপচার করা হয়।

২০০৬ সাল থেকে আরব উপসাগরের তেল সমৃদ্ধ কুয়েতের আমিরের দায়িত্বে আছেন ৯১ বছর বয়সী শেখ সাবাহ। এর আগে ২০১৯ সালেও একবার হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। অসুস্থতার কারণে তখন যুক্তরাষ্ট্র সফর সংক্ষিপ্ত করেন আল-সাবাহ, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেখা করার সূচি পর্যন্ত বাদ দেন তিনি।

আরব উপসাগরে দুই চির শত্রু যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে টানা পোড়েন চরমে পৌঁছালে উভয় পক্ষকে শান্ত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন কুয়েতের আমির। বর্তমান আধুনিক কুয়েতের স্থপতি হিসেবে ভাবা হয় শেখ সাবাহকে।






Related News