শান্তিনগর-ঝিলমিল ফ্লাইওভার হচ্ছে না

প্রেস ওয়াচ রিপোর্টঃ

চলতি মাসের বুধবার (১০ নভেম্বর) অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি’র ৩২তম এবং সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি’র ৩৮তম সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির অনুমোদনের জন্য ২টি এবং সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির অনুমোদনের জন্য (টেবিলে ৩টি উপস্থাপনসহ) ৮টি প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছে।

সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির প্রস্তাবনাগুলোর মধ্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের ৩টি, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের ১টি, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের ১টি, স্থানীয় সরকার বিভাগের ১টি, বিদ্যুৎ বিভাগের ১টি এবং নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের ১টি প্রস্তাবনা ছিল। কমিটির অনুমোদিত ৮টি প্রস্তাবে মোট অর্থের পরিমাণ ১,১৫০ কোটি ১৭ লক্ষ ৬৩ হাজার ৬৯৩ টাকা। মোট অর্থায়নের মধ্যে জিওবি হতে ব্যয় হবে ১৬৭ কোটি ৭৯ লক্ষ ৫৪ হাজার ৯০০ টাকা এবং দেশিয় ব্যাংক, বিশ্বব্যাংক, এডিবি ও সৌদি উন্নয়ন তহবিল হতে অর্থায়ন ৯৮২ কোটি ৩৮ লক্ষ ৮ হাজার ৭৯৩ টাকা।
গৃহীত প্রস্তাবসমূহের মধ্যে, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের রাজউকের আওতায় শান্তিনগর হতে ঢাকা-মাওয়া রোড (ঝিলমিল) পর্যন্ত ফ্লাইওভার নির্মাণ প্রকল্পটি পিপিপি তালিকা থেকে বাতিলের প্রস্তাব নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অধীন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর  কর্তৃক রামপুরা-আমুলিয়া-ডেমরা মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্পটি পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) ভিত্তিতে বাস্তবায়নে প্রকল্পে বিনিয়োগকারী হিসেবে সিসিসিএল এবং সিআরবিসিকে নিয়োগের নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।
এছাড়াও গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীন গণপূর্ত অধিদপ্তর কর্তৃক “নরসিংদী জেলা কারাগার নির্মাণ” প্রকল্প, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অধীন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর কর্তৃক নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতু নির্মাণ” প্রকল্প, স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীন খুলনা ওয়াসা কর্তৃক “খুলনা পয়:নিষ্কাশন ব্যবস্থা উন্নয়ন” প্রকল্প, বিদ্যুৎ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক নরসিংদীর ঘোড়াশাল  চতুর্থ  ইউনিট রি-পাওয়ার্ড কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্প, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অধীন নৌপরিবহন অধিদপ্তর কর্তৃক ইজিআইএমএনএস প্রস্তাবিত প্রকল্পটির অনুমোদন দেওয়া।
 
এছাড়াও টেবিল উপস্থাপন প্রস্তাবে, শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশন (বিসিআইসি) কর্তৃক সৌদি বেসিক ইন্ডাস্ট্রি করপোরেশঙ্কে সৌদি আরব থেকে দশম লটে ৩০ হাজার মেট্রিক টন বাল্ক গ্র্যানুলার (অপশনাল) ইউরিয়া সার ২০৬ কোটি ৩১ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকায় আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।
অন্যদিকে শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশন (বিসিআইসি) কর্তৃক কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেড (কাফকো), বাংলাদেশের কাছ থেকে অষ্টম লটে ৩০ হাজার মেট্রিক টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার ১৯৮ কোটি ৭২ লক্ষ ৫৬ হাজার ২৫০ টাকায় আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।