Main Menu

‘ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের রোগী আরও বাড়তে পারে’

রবিবার (২৩ মে) অনলাইন বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মুখপাত্র অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘এখনও পর্যন্ত দেশে ৯ জনের শরীরে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া গেছে।  জিনোম সিকোয়েন্সিং চলছে। আমরা মনে করি, সব ফলাফল হাতে এলে সংখ্যাটা বেড়ে যাবে। আর  ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ ক্ষমতা অনেক বেশি। তাই করোনা মোকাবিলায় প্রতিরক্ষামূলক যেসব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা হচ্ছে, ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের ক্ষেত্রেও সেই ব্যবস্থাগুলোকে আরও  কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে।’

ডা. নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘সঠিকভাবে মাস্ক পরতে হবে, অন্তত ২০ সেকেন্ড ধরে সাবানের পানি দিয়ে ভালো করে হাত ধোওয়াসহ সব স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। প্রতিটি মানুষ যদি নিরাপদ না হয়, তাহলে বিশ্বের কেউ নিরাপদ নয়। এই মহামারি থেকে রক্ষা পেতে হলে ব্যাক্তিগতসহ স্বাস্থ্যবিধি মানার এবং সচেতনার কোনও  বিকল্প নেই।’

চীনের দেওয়া  উপহারের টিকার প্রয়োগ কার্যক্রম চলতি মাস থেকেই শুরু হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘চীনের টিকার কার্যক্রম এ মাসেই দেওয়া শুরু হবে।’






Related News