Main Menu

শহীদ শেখ কামাল সাধারণ জীবনযাপন করতেন : মেয়র তাপস

ঢাকা, ৫ আগস্ট, ২০২০  : ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, জাতির পিতার সন্তান হওয়া সত্ত্বেও শহীদ শেখ কামাল একেবারেই সাধারণ জীবনযাপন করতেন।
তিনি বলেন, ‘সকলের সাথে তিনি যেভাবে মিশতেন এবং সুসংগঠিত করতেন, আজ এতো বছর পরেও কিন্তু তিনি আমাদের মাঝে চিরঞ্জীব-চিরভাস্বর হয়ে আছেন। তার সাথে যারা এক মিনিটের জন্য একান্তে এসেছেন তারা এখনও তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তার সাথে কাটানো মুহূর্তগুলোর স্মৃতিচারণ করেন।’
আজ সকালে শহীদ শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকীতে বনানী কবরস্থানে তাঁর কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।
মেয়র বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র শহীদ শেখ কামাল অনেক গুণে গুনান্বিত ছিলেন। তিনি যেমন ছিলেন মেধাবী, তেমনি ছিলেন বড় মাপের সাংস্কৃতিক কর্মী। ক্রীড়াঙ্গণেও তাঁর বিশাল অবদান ছিলো। অসামান্য সাংগঠনিক দক্ষতার অধিকারী শেখ কামাল মুক্তিযুদ্ধেও সরাসরি অংশগ্রহণ করেছেন।’
শেখ তাপস বলেন, শেখ কামাল আসলে এক অনন্য মানুষ ছিলেন। অনেক গুণে গুনান্বিত এই মানুষটির বিচরণ যেমন ছিলো ক্রীড়াঙ্গনে, সাংস্কৃতিক পরিম-লে, বিতর্ক প্রতিযোগিতায় এবং রাজনৈতিক অঙ্গণে। বলা যায়, কোথায় ছিলেন না তিনি?
মেয়র বলেন, ১৫ আগস্ট আমরা তাঁকে হারিয়েছি। তিনি যদি বেঁচে থাকতেন, তাহলে জাতির পিতা যে স্বপ্ন দেখতেন, তা আরও আগেই তিনি বাস্তবায়ন করতেন। আমি তাঁর রুহের মাগফেরাত কামনা করছি।
তরুণ সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মেয়র বলেন, আমাদের তরুণ সমাজ তাঁর জীবন থেকে অনেক শিক্ষাগ্রহণ করতে পারেন। আমার মনে হয়, আমাদের তরুণ সমাজের কাছে তাঁর জীবন ও কর্ম সম্পর্কে অনেক বার্তা পৌঁছে দেয়ার কাজ বাকি রয়েছে। তাঁর জীবন থেকে অনেক কিছু গ্রহণ করে এই দেশকে কিভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়, নতুন প্রজন্মের সেদিকে মনোনিবেশ করে নিজেদেরকে গড়ে তোলা উচিত।
তিনি শেখ কামালসহ ১৫ আগস্ট যাঁরা শাহাদাত বরণ করেছেনস তাঁদের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন।
এর আগে ডিএসসিসি মেয়র শহীদ শেখ কামালের কবরে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ এবং তাঁর রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন।বাসস/

image_print





Related News