Main Menu

দুর্নীতি ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বেরোবি উপাচার্য’র জিরো টলারেন্স।তিন প্রতারক আটক।।নবপ্রজন্ম কর্মচারী পরিষদের অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) চাকুরী বাণিজ্যে লিপ্ত প্রতারক চক্রকে আটকে দূরদর্শী পদক্ষেপ গ্রহন করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের  ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ, বিএনসিসিও এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে অভিনন্দন জানিয়েছে নবপ্রজন্ম কর্মচারী পরিষদ।

সুত্র জানায়,বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় রংপুর আউটসোর্সিং পদ্ধতিতে জনবল নিয়োগের ভুয়া কার্যাদেশ বানিয়ে মালি ও  ক্লিনার পদে চাকরি দেয়ার কাজে দীর্ঘদিন সক্রিয় ছিল।ফলে  বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হচ্ছিল।এ প্রেক্ষি্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ, বিএনসিসিও কঠোর পদক্ষেপ গ্রহন করেন এবং প্রতারক চক্রকে সনাক্ততের নির্দেশ দেন

প্রতারনার অভিযোগে চক্রের তিন সদস্যকে আটকের উদ্যোগ গ্রহণ করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের  ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ, বিএনসিসি ও প্রক্টর অফিস নিরাপত্তা শাখাসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরকে  নবপ্রজন্ম কর্মচারী পরিষদ আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে।

মঙ্গলবার ডেইলি প্রেসওয়াচে  পাঠানো  এক বিবৃতিতে পরিষদের আহ্বায়ক মোহাম্মদ সালাউদ্দিন আহমেদ এবং সদস্য সচিব মোঃ আরিফুল হাসান বলেন,বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ ভাইস-চ্যান্সেলর হিসেবে প্রফেসর ডঃ মেজর নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ বিএনসিসিও দায়িত্ব গ্রহণের পর দুর্নীতি ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স গ্রহণ করেন। সেই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে করোনাঅকালীন  দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে তিনি এ ধরনের চাকরি বাণিজ্য বন্ধের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলরের বিচক্ষণ ও দূরদর্শী নেতৃত্ব সকল প্রতিবন্ধকতা  দূর করে আগামীদিনে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়কে দেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হবে।  এই আশা প্রত্যাশা প্রজন্ম কর্মচারী পরিষদের পরিষদের আহ্বায়ক মোহাম্মদ সালাউদ্দিন আহমেদ এবং সদস্য সচিব মোঃ আরিফুল হাসান এক যুক্ত বিবৃতিতে আজ এ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।






Related News