Main Menu

চট্টগ্রামে শত শত শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে মেয়রের অনুষ্ঠান, সমালোচনার ঝড়

করোনা সংক্রমের মারাত্মক ঝুঁকি থাকা সত্বেও কোনো রকম স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই শত শত শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে চট্টগ্রামে উদ্বোধন করা হয়েছে নতুন স্কুল ভবন। আর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। 

সকালে শিক্ষকদের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন উদ্বোধন করেন পাথরঘাটা রবীন্দ্র-নজরুল কিন্ডারগার্টেন এবং সিটি কর্পোরেশন স্কুলের নতুন ভবন। ফিতা কেটে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর চলে মূল অনুষ্ঠান। যেখানে সিটি মেয়র ছাড়াও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং স্কুলের প্রধান শিক্ষিকাসহ অন্যান্যরা বক্তব্য রাখেন।

আর পুরো অনুষ্ঠানে স্কুলের পোশাক পড়েই উপস্থিত ছিলেন স্কুলটির শিক্ষার্থীরা। করোনার সংক্রমণের কোনো বিধি নিষেধেই মানা হয়নি অনুষ্ঠানে। এমনকি অধিকাংশ শিক্ষার্থীদের মুখে যেমন মাস্ক ছিল না, তেমনি অনুষ্ঠান শেষে ছিল তাদের হুড়োহুড়ি। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের কোনো বালাই ছিল না পুরো অনুষ্ঠানে। পাশাপাশি চেয়ারে বসেই তারা অনুষ্ঠান উপভোগ করেছে।

অথচ করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে গত মার্চ মাস থেকেই বন্ধ রয়েছে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এমনকি সব ধরণের জনসমাগমের উপর এখনো বিধি নিষেধ রয়ে গেছে। বিকালের দিকে অনুষ্ঠানের কিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং ছাত্রলীগের একাংশ এর প্রতিবাদে সোচ্চার হয়ে উঠে।

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের কোনো বক্তব্য পাওয়া না গেলেও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং বিএনপি নেতা ইসমাইল হোসেন বালির দাবী, দাওয়াত না দেয়া সত্বেও শিক্ষার্থীরা অনুষ্ঠানে এসেছে। শিক্ষার্থীরা অনুষ্ঠানে আসলেও পুরোদমে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা হয়েছে। অপরদিকে স্কুল কর্তৃপক্ষের দাবী, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে হয়েছে। প্রতি ক্লাস থেকে ১০ জন করে শিক্ষার্থীকে অনুষ্ঠানে আসতে বলা হয়েছিলো।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া সময় সংবাদকে বলেন, ‘অনুষ্ঠানে আমি যাই নি। তারপরেও যেহেতু সমালোচনা হচ্ছে, তাই আমি ফোন করে স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে বিষয়টি জানতে চেয়েছি। সোমবার তাদের কর্পোরেশনে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে যতটুকু জেনেছি, তা হলো প্রকৌশল বিভাগেই অনুষ্ঠানটির আয়োজক ছিল। এখন স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাইবো শিক্ষার্থীদের কে দাওয়াত দিয়েছিলো এবং পুরো অনুষ্ঠানে কত জন শিক্ষার্থী ছিল। পরবর্তীতে যদি কারো গাফেলতি পাওয়া যায় তাহলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

অভিযোগ উঠেছে, মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ায় আগামী ৫ আগস্ট আ জ ম নাছির উদ্দিনকে মেয়র পদ ছাড়তে হবে। আর পদ ছাড়ার আগেই তিনি তড়িঘড়ি করে উন্নয়ন প্রকল্পগুলো উদ্বোধন করছেন। আর এধরণের তাড়াহুড়ো করতে গিয়েই করোনা বিধি নিষেধ না মানার এই ঘটনা ঘটেছে। জাইকার অর্থায়নে ৯ কোটি ৫২ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছে পাথরঘাটা রবীন্দ্র-নজরুল কিন্ডারগার্টেন সিটি কর্পোরেশন বালক উচ্চ বিদ্যালয়। স্কুলের পাশাপাশি সাইক্লোন সেন্টার হিসাবেও ব্যবহৃত হবে ৫ তলা ভবনটি।






Related News