Sunday, July 12th, 2020

now browsing by day

 
Posted by: | Posted on: July 12, 2020

‘সাহেদের বিদেশ পালানোর সুযোগ নেই, যেকোনো সময় গ্রেফতার’

ঢাকা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদের বিদেশে পালিয়ে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। যেকোনো সময় তাকে গ্রেফতার করা হবে।

রোববার (১২ জুলাই) ঈদ-উল-আযহা ২০২০ উপলক্ষে দেশের সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা, কোরবানির পশুর হাটের নিরাপত্তা ও চামড়া পাচার রোধকরণ এবং শিল্পঞ্চলে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণসহ প্রাসঙ্গিক বিষয়ে করণীয় নির্ধারণের লক্ষ্যে সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদ যত বড় ক্ষমতাবানই হোন না কেন তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। সাহেদকে খোঁজা হচ্ছে। তাকে আত্মসমর্পন করতে হবে, অন্যথায় তাকে গ্রেফতার করা হবে। তার বিদেশ যাওয়ার সুযোগ কোনো সুযোগ নেই। যেকোনো সময় তাকে গ্রেফতার করা হবে।’

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘সাহেদের সকল অপরাধ তদন্ত করা হচ্ছে। দ্রুতই এ বিষয়ে রিপোর্ট দেওয়া হবে।’

এ সময় আইজিপি বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘সাহেদকে গ্রেফতারে সবধরনের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। তাকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।’ সব তথ্যের ভিত্তিতে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান আইজিপি।

উল্লেখ্য, গত ৬ জুলাই উত্তরায় রিজেন্ট হাসপাতালে র‌্যাবের অভিযানে নানা সত্যতা বেরিয়ে আসে। পরে সেখান থেকে আটজনকে গ্রেফতার করে হেফাজতে নেয় র‌্যাব। ওই ঘটনায় ৭ জুলাই মঙ্গলবার রাতে উত্তরা পশ্চিম থানায় ১৭ জনকে আসামি করে মামলা করা হয়। এতে আটককৃতদের গ্রেফতার দেখানো হয়। আর রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদসহ নয়জনকে পলাতক আসামি হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

Posted by: | Posted on: July 12, 2020

১ কোটি গাছের চারা রোপণের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১৬ জুলাই সকাল ১১ টায় গণভবনে একটি তেতুল ও একটি ছাতিয়ান গাছ রোপণের মাধ্যমে ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপনের অংশ হিসেবে দেশব্যাপী শতলক্ষ (১ কোটি) গাছের চারা রোপণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন

রোববার (১২ জুলাই) বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক অনলাইন সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন এ কথা জানান।

বন মন্ত্রী জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পর প্রতিটি জেলা এবং উপজেলায় আনুষ্ঠানিকভাবে একটি ফলদ, একটি বনজ ও একটি ঔষধি গাছের চারা রোপণ করা হবে। করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী ১৬ জুলাই থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ পর্যন্ত বৃক্ষরোপণ মৌসুমে সুবিধাজনক সময়ে দেশের ৪শত ৯২টি উপজেলার প্রতিটিতে ২০ হাজার ৩ শত ২৫ টি করে গাছের চারা রোপণ করা হবে ।

বন মন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা এদেশে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি শুরু করেছিলেন। তারই পদাঙ্ক অনুসরণ করে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় মুজিববর্ষে এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, দেশীয় ফলদ, বনজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপণের এ কর্মসূচির পঞ্চাশ শতাংশের বেশি থাকবে ফলজ গাছ। মন্ত্রী এ মহতী কর্মসূচি সফল করার জন্য মাননীয় সংসদ সদস্যগণসহ দেশের সকল পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি এবং সংশ্লিষ্ট সকলের সহায়তা কামনা করেন। তিনি প্রতিটি গাছ রোপণের পর নিয়মিত খোঁজখবর রাখা এবং যথাযথভাবে রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা প্রদান করেন।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব জিয়াউল হাসান এনডিসি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার এমপি। মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব(প্রশাসন) ডক্টর মোঃ বিল্লাল হোসেন এর পরিচালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত সচিব আহমদ শামীম আল রাজী ও মোঃ মিজানুল হক চৌধুরী, পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এ কে এম রফিক আহাম্মদ, বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষক আমীর হোসেন চৌধুরী, বনশিল্প উন্নয়ন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আহসানুল জব্বার, জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ আহমদ, বন গবেষণা ইন্সটিটিউট এর পরিচালক ড. মো. মাসুদুর রহমান এবং ন্যাশনাল হারবেরিয়ামের পরিচালক পরিমল সিংহসহ মন্ত্রণালয়ের উর্ধতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

Posted by: | Posted on: July 12, 2020

ঢাকা দক্ষিণ সিটির ১৩ পশুর হাট বাতিল

করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে কোরবানির পশুর হাট কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি)। এরই অংশ হিসেবে ১৩টি পশুর হাট বাতিল করেছে ডিএসসিসি। ফলে এবার ঢাকা দক্ষিণে হাট বসবে মাত্র ৫টি। পাশাপাশি একটি অনলাইন হাট বসানোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে সিটি কর্পোরেশন।

রোববার (১২ জুলাই) ডিএসসিসি এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এ প্রসঙ্গে ডিএসসিসির প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. রাসেল সাবরিন গণমাধ্যমকে বলেন, সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ডিএসসিসি এলাকায় এবার ৫টি অস্থায়ী পশুর হাট বসবে। পাশাপাশি আমরা একটি ডিজিটাল পশুর হাট বসানোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছি। সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আলোচনা ফলপ্রসূ হলে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আদলেই ডিএসসিসি একটি ডিজিটাল হাট বসবে।

ডিএসসিসি এলাকায় যেসব স্থানে হাট বসবে– উত্তর শাহজাহানপুর মৈত্রী সংঘের মাঠসংলগ্ন খালি জায়গা, হাজারীবাগ লেদার টেকনোলজি কলেজসংলগ্ন খালি জায়গা, পোস্তগোলা শ্মশানঘাটসংলগ্ন খালি জায়গা, কমলাপুর লিটল ফ্রেন্ডস ক্লাবসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, আফতাবনগর ব্লক-ই, এফ, জির সেকশন ১ ও ২ নম্বর এলাকায়।

Posted by: | Posted on: July 12, 2020

ভুয়া করোনা রিপোর্ট: ডা. সাবরিনা গ্রেফতার

নমুনা পরীক্ষা ছাড়াই করোনা টেস্টের ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ার ঘটনায় ডা. সাবরিনা চৌধুরীকে জিজ্ঞাসাবাদের পর গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ তথ্য নিশ্চিত করেন তেজগাঁও বিভাগের ডিসি হারুন অর রশিদ।

রোববার (১২ জুলাই) দুপুরে ডিএমপির তেজগাঁও উপ-কমিশনারের (ডিসি) কার্যালয়ে সাবরিনাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়।

এর আগে হারুন অর রশিদ জানান, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডা. সাবরিনাকে ডেকেছেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। অধিকতর তদন্তের স্বার্থে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

করোনার রিপোর্ট কেলেঙ্কারিতে এরইমধ্যে গ্রেফতার হয়েছেন ডা. সাবরিনার স্বামী জেকেজি হেলথ কেয়ারের সিইও আরিফ চৌধুরীসহ ৬ জন। তাদের এক ল্যাপটপেই পাওয়া গেছে ১৫ হাজারেরও বেশি করোনার ভুয়া টেস্ট রিপোর্ট।

অভিযোগ রয়েছে, জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের চিকিৎসক সাবরিনার দাপটেই আরিফ চৌধুরী করোনা পরীক্ষার অনুমতি বাগিয়ে নেন স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে। জেকেজির চেয়ারম্যান হিসেবে সব যোগাযোগ রক্ষা করতেন সাবরিনাই।

গত ২৩ জুন করোনার ভুয়া সনদ দেওয়া, জালিয়াতি ও প্রতারণার অভিযোগে আরিফুলসহ ছয়জনকে গ্রেফতারের পর আরিফুলের ক্যাডার বাহিনী তেজগাঁও থানায় ভাঙচুর ও হামলা করে। মারধর করে পুলিশকে। এছাড়া রাজধানীর মহাখালীর তিতুমীর কলেজে নমুনা সংগ্রহের বুথ বসিয়ে সেখানে প্রশিক্ষণের নামে নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগও পাওয়া যায়। কলেজের কক্ষে নারী-পুরুষের আপত্তিকর অবস্থানসহ নানা অনৈতিক কাজে বাধা দিলে তিতুমীর কলেজের শিক্ষক, কর্মচারী ও ছাত্রদের ওপরও হামলা করে আরিফুলের লোকজন।

অভিযোগ পাওয়া যায়, রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদের মতো বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নাম ভাঙিয়ে বিভিন্নজনকে হুমকি দিতেন আরিফ। এমনকি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নাম ব্যবহার করে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালককেও দেখে নেওয়ার হুমকি দেন তিনি।

জানা যায়, জেকেজির কর্ণধার স্বামী-স্ত্রী মিলে করোনা টেস্টের ভুয়া সনদ বিক্রি করেছেন। প্রতিটি টেস্টের জন্য জনপ্রতি নিয়েছেন সর্বনিম্ন পাঁচ হাজার টাকা। আর বিদেশি নাগরিকদের কাছ থেকে জনপ্রতি তারা নিতেন ১০০ ডলার।

Posted by: | Posted on: July 12, 2020

করোনাকালে বন্ধ হয়ে গেল ২৭৫ পত্রিকা

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে দেশের উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় শহর থেকে প্রকাশিত ৪৫৬টি স্থানীয় সংবাদপত্রের মধ্যে ২৭৫টি (৬০ দশমিক ৩১ শতাংশ) সম্পূর্ণভাবে বন্ধ হয়ে গেছে। এছাড়াও অনিয়মিত  অর্থাৎ বিজ্ঞাপন পেলে অথবা অর্থসংস্থান হলে ১৮টি (৩ দশমিক ৯৫ শতাংশ) সংবাদপত্র প্রকাশ করা হয়।

বাংলাদেশ ইন্ডিপেন্ডেন্ট জার্নালিস্টস নেটওয়ার্কের (বিআইজেএন) এক জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। শনিবার (১১ জুলাই) এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

সংগঠনটির প্রধান সমন্বয়কারী আমীর খসরু মূল প্রতিপাদ্য উপস্থাপন করে বলেন, দেশের ৩৪টি জেলার ৪৫৬টি স্থানীয় সংবাদপত্রের ওপর সম্প্রতি জরিপ চালানো হয়। এ জরিপে দেশের সংবাদপত্রগুলো বন্ধ হয়ে যাওয়ার তথ্য উঠে আসে।

তিনি বলেন, সংবাদপত্রগুলো বন্ধ হয়ে যাওয়ার মূল কারণ বিজ্ঞাপন বন্ধ হয়ে যাওয়া। স্থানীয় পত্রিকাগুলো বন্ধ হওয়া অনেক তথ্য কমে গেছে। বিশেষ করে স্থানীয় অনেক সংবাদগুলো দেশের জাতীয় পত্রিকায় জায়গা না হওয়া প্রকাশ পায় না। সে সব সংবাদ স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশ পেত। কিন্তু এখন পত্রিকাগুলো বন্ধ হওয়ায় দুর্নীতিবাজদের ভীতি কমে এসেছে।