জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ন্যায্যতায় বিশ্বাসী ছিলেন: ড. কলিমউল্লাহ       

প্রেসওয়াচ রিপোর্টঃ জানিপপ-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ড. কলিমউল্লাহ বলেছেন,জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ন্যায্যতায় বিশ্বাসী ছিলেন। মঙ্গলবার মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষ্যে জানিপপ কর্তৃক আয়োজিত বর্ষকালব্যপী জুম ওয়েবিনারে আলোচনা সভার ১৫৬তম পর্বে সভাপতির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

জানিপপ-এর  চেয়ারম্যান প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ইউএন ডিজএ্যাবিলিটি রাইটস্ চ্যাম্পিয়ন আবদুস সাত্তার দুলাল এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন  রংপুর মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোসাঃ আর্জিনা খানম।

সভায় গেস্ট অব অনার হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ওয়েস্টার্ন সিডনি ইউনিভার্সিটির ফেলো ড.তানভীর ফিত্তীণ আবীর এবং মুখ্য আলোচক হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক দেওয়ান নুসরাত জাহান।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আব্দুস সাত্তার দুলাল বলেন,বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর বাংলাদেশের রাজনীতি মূলত গণবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। সিংহভাগ রাজনৈতিক দলের অভ্যন্তরে গণতন্ত্র নেই। তাই এদের দ্বারা জনগণের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলনের সুযোগ নাই। বর্তমান রাজনীতি পেশিশক্তি এবং দুর্নীতিবাজদের রাহুগ্রাসের কবলে। এজাতীয় অপরাজনীতির কবল থেকে মুক্তির জন্য জনগণের প্রতি শ্রদ্ধা ও প্রতিশ্রুতিশীল রাজনীতির চর্চা করতে হবে এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুসরণ করতে হবে ।

আর্জিনা খানম বলেন, জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে চক্রান্তকারীরা আবারো ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। বঙ্গবন্ধুর প্রেমীদের এ বিষয়ে সজাগ এবং সতর্ক অবস্থানে থাকার আহ্বান জানান তিনি।

ড.আবীর, জাতীয় রাজনীতিতে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের প্রতিফলনের উপর গুরুত্বারোপ করেন।

দেওয়ান নুসরাত জাহান, যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশকে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী পদক্ষেপসমূহ তুলে ধরেন।

দিপু সিদ্দিকী বলেন,জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মুক্তমত চর্চা এবং বহুমাত্রিক সমাজ গঠন করার লক্ষ্যে প্রেস কাউন্সিল সহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছিলেন।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য উপস্থাপন করেন রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা এর সহযোগী অধ্যাপক,বিভাগীয় প্রধান ও ডেইলি প্রেসওয়াচ সম্পাদক দিপু সিদ্দিকী,পঞ্চগড় থেকে খাদেমুল ইসলাম এবং নীলফামারীর জলঢাকা থেকে পিএইচডি গবেষক ফাতেমা তুজ-জোহরা লিমা।

এছাড়াও আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে সংযুক্ত ছিলেন সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তা ইএন রুমা।

Share: