Main Menu

ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই এদেশের মানুষ: ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বাংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়িক দেশ। এদেশের অনেক ধর্মের মানুষ মিলেমিশে একসঙ্গে বসবাস করে। তারা সবাই ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষ এদেশের মানুষ। তারা সবাই সমান অধিকার ভোগ করবেন। সরকার এই নীতিতে অবিচল।’

শনিবার (২৪ অক্টোবর) রাজধানীর খামারবাড়িতে সনাতন সমাজকল্যাণ সংঘ আয়োজিত শারদীয় দুর্গোৎসবের মহাঅষ্টমীর অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, চিত্রনায়ক ফেরদৌস প্রমুখ এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘সরকার সংখ্যালঘু-সংখ্যাগুরু শব্দের মাধ্যমে কোনও ধর্মের অনুসারীদের সংজ্ঞায়িত করতে চায় না। এ দৃষ্টিভঙ্গিতে কাউকে দেখেও না। মাইনোরিটি বলে কোনও শব্দের বেড়াজালে শেখ হাসিনার সরকার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের আবদ্ধ রাখতে চায় না। মাইনোরিটি-মেজোরিটি এসব শব্দ তাদের সৃষ্টি, যারা আবহমান কাল থেকে চর্চিত সম্প্রীতির সম্পর্কের বীজতলা নষ্ট করতে চায়। অন্ধকারের সেই অপশক্তি সুযোগ পেলেই ছোবল মারে। আমাদের বরাবরের মতো সতর্ক থাকতে হবে, সম্পর্কের ক্ষেত্রে। কারণ তারা দুর্বল হয়েছে, কিন্তু নির্মূল হয়নি।’

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টকারীরা দেশকে পিছিয়ে দিতে চায় অভিযোগ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে চলমান উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির ধারাবাহিকতায় তাদের গাত্রদাহ সৃষ্টি হয়েছে। তারা নানা অপকৌশলে দেশকে পিছিয়ে দিতে চায়। তাদের অপকৌশলের অর্থ হচ্ছে হিন্দু-মুসলমানের বৈরিতা সৃষ্টি করা। শেখ হাসিনার সরকার মুসলমান-হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সবাইকে নিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়ে তুলতে চায় বলে মন্তব্য করেন তিনি।






Related News