Main Menu

বিভিন্ন জেলায় যথাযথ মর্যাদায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী পালিত।

আগস্ট ০৮, ২০২০শনিবার (৮ আগস্ট) দেশের বিভিন্ন জেলায় যথাযথ মর্যাদায় পালিত হয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মা বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী। সবগুলো জেলা-উপজেলায় এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে জেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদফতর।

 বরিশাল প্রতিনিধি জানান, বঙ্গমাতার জন্মদিনে বরিশালে আলোচনা সভা এবং কর্মক্ষম নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন এবং অস্বচ্ছল নারীদের আর্থিক অনুদান দেওয়া হয়েছে। দুপুরে জেলা প্রশাসনের সভাকক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক তৌহিদুজ্জামান পাভেলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম এবং মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার মোক্তার হোসেন। সভায় বিভিন্ন দফতরের জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। সভায় ৬৬ জন কর্মক্ষম নারীর মাঝে সেলাই মেশিন এবং করোনার কারণে কর্মচ্যুত ও অস্বচ্ছল ২০ জন নারীকে আড়াই হাজার টাকা করে অনুদান দেন জেলা প্রশাসক।

 ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি জানান, শনিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ্-দৌলা খানের সভাপতিত্বে এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আসিনুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সালমা আহমেদ। অনুষ্ঠানে ছয় জন কর্মজীবি প্রশিক্ষিত নারীকে সেলাই মেশিন প্রদান করা হয়।

 নড়াইল প্রতিনিধি জানান, শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিবের জন্মদিন উপলক্ষে দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে দরিদ্র, অসহায় ও দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন এবং অনুদান বিতরণ করা হয়েছে। জেলার তিন উপজেলার ১৮ জন দরিদ্র, অসহায় ও দুস্থ মহিলাকে ১৮টি সেলাই মেশিন এবং ২০ জনকে ২ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করা হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন নড়াইলের জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা। সভাপতিত্ব করেন মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের নড়াইলের উপ-পরিচালক মো. আনিছুর রহমান।  অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট (এডিএম) সুমি মজুমদার, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সালমা সেলিম, এনডিসি মো. জাহিদ হাসান।

 নীলফামারী প্রতিনিধি জানান, শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ‘বঙ্গমাতা ত্যাগ ও সুন্দরের সাহসী প্রতীক’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে শনিবার দুপুরে জেলা শিল্পকলা অ্যাকাডেমি মিলনায়তনে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনলাইনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এতে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গমাতার আত্মজীবনী ও ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট তাকে নির্মমভাবে হত্যার কথা তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ছয় জন দুস্থ নারীকে সেলাই মেশিন দেওয়া হয়। তাদের হাতে সেলাই মেশিন তুলে দেন প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী। এছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা , শেখ ফজিলাতুননেছা মুজিবসহ সকল শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া করা হয়। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের উপ-পরিচালক নুরুন্নাহার শাহজাদী। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক আব্দুল মোতালেব সরকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবুল বাশার মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলিনা আকতার, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সাহিদ মাহমুদ, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মসফিকুল ইসলাম রিন্টু প্রমুখ। অপরদিকে, বিকালে বঙ্গমাতার জম্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা, গাছের চারা বিতরণ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ। দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রূপালী খানমের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক ফরিদা খানম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল হক, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুজার রহমান, সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুদ রহমান প্রমুখ। শেষে সেখানেও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

হিলি প্রতিনিধি জানান, দিনাজপুরের হিলিতে আলোচনা সভা ও দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণের মধ্য দিয়ে দিনটি পালিত হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা পরিষদ হলরুমে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাষনসহ কেন্দ্রীয় অনুষ্ঠান প্রজেক্টরের মাধ্যমে সরাসরি প্রচার করা হয়। এ সময় বক্তারা বঙ্গমাতার কর্ম জীবনের নানা দিক তুলে ধরেন। একইসঙ্গে করোনা মোকাবেলায় বাড়ি থেকে বের হলেই মুখে মাস্ক ব্যবহারের আহ্বান জানানো হয়। আলোচনা শেষে উপজেলার ৬ জন দুস্থ মহিলার হাতে সেলাই মেশিন তুলে দেওয়া হয়। হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুর রাফিউল আলমের সভাপতিত্বে এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন উর রশীদ হারুন, মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত, ভাইস চেয়ারম্যান শাহিনুর রেজা শাহীন, সমাজ সেবা কর্মকর্তা কামরুজ্জামান, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার আব্দুল হান্নান, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রিতা লস্কর প্রমুখ।

 






Related News