Tuesday, February 19th, 2019

now browsing by day

 
Posted by: | Posted on: February 19, 2019

বিশ্বের বহু দেশের চাইতে বাংলাদেশের গণমাধ্যম অনেক বেশি স্বাধীন : তথ্যমন্ত্রী

(বাসস) : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্মুদ বলেছেন, বিশ্বের বহু দেশের চাইতে বাংলাদেশের গণমাধ্যম অনেক বেশি স্বাধীনতা ভোগ করে এবং বর্তমান সরকারের নেতৃত্বে তা স্মরণকালে সবচেয়ে বেশি বিকাশ লাভ করছে।
তিনি বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের গণমাধ্যমকে বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ অবস্থানে নিয়ে যেতে চাই এবং সেই সাথে গণমাধ্যমের দায়িত্বশীলতাও সেই পর্যায়ে যাবে বলে আশা করি।’
আজ মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বিভিন্ন দেশ থেকে আগত প্রেস কাউন্সিল প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তথ্যমন্ত্রী একথা বলেন।
তথ্যসচিব আবদুল মালেক, বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, কাউন্সিল সচিব শাহ আলম, সদস্য মনজুরুল আহসান বুলবুল ও মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
যুক্তরাজ্যের উদাহরণ উল্লেখ করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘যুক্তরাজ্যে ভুল তথ্য পরিবেশনের জন্য শত বছরের পুরানো পত্রিকার নিবন্ধনও বাতিল হয়ে যায়। সেখানকার হাউজ অব কমন্সের প্রতিনিধিকে নিয়ে ভুল তথ্য উপস্থাপনের জন্য বিবিসি’র নির্বাহী কর্মকর্তাদের পদত্যাগ পর্যন্ত করতে হয়েছে। বাংলাদেশে এমন কোনো ঘটনা কখনো ঘটেনি।’
তথ্যমন্ত্রী এসময় ভারত, ভুটান, মালদ্বীপ, শ্রীলংকা, নেপাল ও তুরস্ক থেকে আগত প্রেস কাউন্সিল প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৪ সালে ১৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল গঠন করেন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের আমলে প্রেস কাউন্সিল ক্রমেই সংবাদপত্র জগতে স্বচ্ছতা বৃদ্ধিতে অধিক কার্যকর ভূমিকা রাখছে।’
সাংবাদিকদের কল্যাণে সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ হিসেবে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট গঠন, জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা, অনলাইন গলমাধ্যম নীতিমালাসহ গণমাধ্যমকে বিকশিত করার বিভিন্ন কার্যকর প্রক্রিয়ার কথাও তুলে ধরেন তথ্যমন্ত্রী।
ভারতের প্রেস কাউন্সিল চেয়ারম্যান বিচারপতি চন্দ্রমাওলি কুমার প্রসাদ, ভারতের প্রেস কাউন্সিল সচিব অনুপমা ভাটনগর, সদস্য সি কে নাইক, সুষমা যাদব, সৈয়দ রেজা হোসাইন রিজভী, জয়সংকর গুপ্ত, শ্রীলঙ্কার প্রেস কাউন্সিল চেয়ারম্যান কুজগাল্লা ওয়েল্লা বানদুলা, সদস্য এ. কাঞ্চনা কুমারা এরিয়াদাসা, বি. গামিনী পুষ্পকুমারা জয়ারতœ, নেপালের প্রেস কাউন্সিল চেয়ারম্যান কিশোর শ্রীথা, সদস্য শারাজওয়াতি শ্রীথা, পরিচালক বিন্দু তালাদার, সাবিতা ধকাল, মালদ্বীপের মিডিয়া কাউন্সিল সদস্য আজমি আলী, আলী রিফসান, তুরস্ক থেকে আগত বিশ্ব প্রেস কাউন্সিল সচিব আলী হেনচারলি, ভুটানের রিনজিন ওয়াংচুক, জিগমি ওয়াংচুক বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য ১৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল দিবস উপলক্ষে গতকাল সোমবার আয়োজিত প্রেস কাউন্সিল পদক প্রদান অনুষ্ঠানে যোগদান উপলক্ষে ছ‘টি দেশের প্রেস কাউন্সিল প্রতিনিধিরা বাংলাদেশ সফর করছেন।

Posted by: | Posted on: February 19, 2019

সড়ক নির্মাণে গুণগতমান সুরক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ সেতুমন্ত্রীর

(বাসস) : সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সড়ক নির্মাণে গুনগতমান সুরক্ষার উপর গুরুত্বারোপ করে প্রকল্প দলিল অনুযায়ী যথাযথ ও গুণগত মানের উপকরণ ব্যবহারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও প্রকৌশলীদের নির্দেশ প্রদান করেছেন। তিনি আজ রাজধানীর তেজগাঁওয়ের সড়ক ভবনের সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা, প্রকৌশলী, বাস্তবায়নাধীন প্রকল্প প্রধানদের নিয়ে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্য দানকালে এ নির্দেশ দেন।
সড়ক নির্মাণকাজের গুণগতমান নিয়ে জনমনে প্রশ্ন আছে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক বলেন, কিছু কিছু সড়ক নির্মাণের তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে পড়ছে। সড়ক নির্মাণে গুণগতমান সুরক্ষার বিষয়টি সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিতে হবে। এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের অর্থায়নে নবনির্মিত সড়ক ভবনে স্বল্পতম সময়ে অধিদপ্তরের দাপ্তরিক কাজ শুরুর নির্দেশ দিয়ে সেতুমন্ত্রী কাদের আরো বলেন, দেশে এ মূহুর্তে বেহাল সড়কের সংখ্যা অনেক কমে এলেও কিছু জেলা সড়কে সমস্যা আছে। এ সকল সড়ক বর্ষার আগেই যান চলাচলের উপযোগী করতে হবে। প্রয়োজনে রাতেও কাজ করতে হবে।
আগামী মার্চ মাসের প্রথমার্ধে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নবনির্মিত ২য় কাঁচপুর সেতু চালু হতে যাচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ঈদ-উল-ফিতরে জনগণের ঘরে ফেরা স্বস্তিদায়ক করতে ঈদের আগেই ২য় মেঘনা ও ২য় গোমতি সেতুর নির্মাণকাজ শেষ করতে হবে।
তিনি বলেন, সাসেক সড়ক সংযোগ প্রকল্পের আওতায় জয়দেবপুর হতে এলেঙ্গা পর্যন্ত মহাসড়ক চারলেনে উন্নীতকরণ কাজ প্রায় শেষ প্রান্তে। ঈদের আগেই চালু হতে যাচ্ছে এ মহাসড়কে নবনির্মিত কোনাবাড়ি, চন্দ্রা ফ্লাইওভারসহ দুটি রেলওয়ে ওভারপাস এবং চারটি আন্ডারপাস।
সড়ক পরিবহন মন্ত্রী বলেন, ঢাকা-সিলেট এবং চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক চারলেনে উন্নীতকরণ কাজ সরকার গুরুত্বের সাথে নিয়েছে। এ দুটি মহাসড়কের দুপাশে ধীরগতির যানবাহন চলাচলের জন্য আলাদা দুটি লেন নির্মাণ করা হবে।
মেরিন ড্রাইভ প্রশস্তকরণের ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, কক্সবাজারে অবস্থানকালে পর্যটকদের বিনোদন সুবিধা বাড়ানো জরুরি। সড়কপাশে আলোকসজ্জাসহ মেরিন ড্রাইভের কলাতলী প্রান্তে ক্ষতিগ্রস্ত দুই কিলোমিটার সড়ক ও ওয়াকওয়ে নির্মাণের লক্ষ্যে প্রকল্প গ্রহণের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। সম্প্রতি একনেকে পাস হওয়া লিংক রোড থেকে লাবণী পয়েন্ট পর্যন্ত সড়ক চারলেনে উন্নীত করার কাজ দ্রুত শুরু করার উদ্যোগ নিতেও সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন মন্ত্রী ।
সভায় সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী ইবনে আলম হাসান, বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট প্রকল্পের পরিচালক সানাউল হক, সাসেক সড়ক সংযোগ প্রকল্প-১ ’র পরিচালক মো. ইসহাক এবং প্রকল্প-২ ’র পরিচালক শাহরিয়ার আলম, ক্রস বর্ডার প্রকল্পের পরিচালক মো. আতিক, মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎ সংযোগ প্রকল্পের পরিচালক মঈনুল ইসলামসহ ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী সড়ক জোন, সার্কেল এবং ডিভিশনের প্রকৌশলীগণ উপস্থিত ছিলেন।

Posted by: | Posted on: February 19, 2019

আগের মতো এবারও স্থানীয় নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক এবং অংশগ্রহণমূলক হবে : সিইসি

(বাসস) : প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) খান মো. নূরুল হুদা বলেছেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচন আগে যেমন প্রতিযোগিতামূলক হয়েছে, এ বছরও তেমনিভাবে প্রতিযোগিতামূলক এবং অংশগ্রহণমূলকও হবে।
তিনি বলেন, ‘আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক হবে। এদেশে স্থানীয় সরকার নির্বাচন সারা জীবনব্যাপী যেরকম প্রতিযোগিতামূলক হয়েছে। এ বছরও কিন্তু তেমনিভাবে প্রতিযোগিতামূলক হবে। তেমনিভাবে অংশগ্রহণমূলক হবে। এদেশের মানুষ অন্যান্য মানুষের চেয়ে বেশি নির্বাচনমুখী, বেশি ভোটদানমুখী। সেই উৎসব তাদের মধ্যে রয়েছে। সে কারণে তারা গিয়ে ভোট দেন। রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সতর্কতার সঙ্গে দেখতে হবে নির্বাচনকে ঘিরে যেনো প্রাণহানি না ঘটে। কারণ একটা জীবন একটা নির্বাচন দিয়ে প্রতিস্থাপন করা যায় না।’
আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে আজ উপজেলা পরিষদের তৃতীয় ধাপে দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।
সিইসি বলেন, ‘নির্বাচনে ভোটাররা সারিবদ্ধভাবে উৎসবমুখর পরিবেশে, আনন্দঘন পরিবেশে, নির্বাচন কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেয়ার জন্য উপস্থিত থাকেন। এটা আমাদের দেশের একটা বৈশিষ্ট্য। সেই নির্বাচনের পরিচালনার দায়িত্ব আপনাদের হাতে। সেই দিক দিয়ে কিন্তু আপনাদের আদালাভাবে আনন্দ এবং গুরুত্ব বহন করার কথা। আপনাদের হাতে দায়িত্ব দিয়ে সে দায়িত্ব পালন করা হবে কি হবে না সেটা যদি সন্দেহ করি, তাহলে আর কোথায় যাবো আমরা? জাতি কোথায় যাবে?’
তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচন এবারই প্রথম রাজনৈতিক মনোনয়নে হবার কথা। এর আগে কখনো হয়নি। কিন্তু সেসব নির্বাচন কি প্রতিযোগিতামূলক হয়নি? কেউ কাউকে ছাড় দেয় না। প্রত্যেকেই সেখানে প্রতিযোগিতামূলক অবস্থান নেন এবং প্রত্যেক প্রার্থী, সমর্থক এবং ভোটাররা কিন্তু সে নির্বাচনকে অত্যন্ত গুরুত্বসহকারে দেখে। আমি মনে করি। আপনারা সেটা করতে পারবেন এবং করবেন।
নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের মধ্যে সমন্বয়ের গুরুত্ব তুলে ধরে সিইসি বলেন, একটা জাতির দায়িত্ব পালন করার ক্ষেত্রে দরকার সবার ঐক্যবদ্ধ, সমন্বিত ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টা। সকলের প্রচেষ্টা, দক্ষতা, অভিজ্ঞতা একটা ভান্ডারে এসে যখন জমা হয়, সেটা হয় একটা বড় অর্জন। সেই অর্জনের ধারাবাহিকতা এখনো আছে এবং থাকবে। নির্বাচন কমিশনই কেবলমাত্র একত্রে সব ধরনের প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তাদের নির্বাচনের দায়িত্বপালন করে থাকে। আর অন্য কোনো দপ্তর এভাবে সকলের একত্রে কাজ করার সুযোগ নেই।

Posted by: | Posted on: February 19, 2019

ট্রাম্পের জরুরি অবস্থা জারির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ১৬টি অঙ্গরাজ্যের মামলা

সানফ্রান্সিসকো, (বাসস ডেস্ক) : মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে অর্থ সংগ্রহের জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জরুরি অবস্থা জারির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের ১৬টি অঙ্গরাজ্য তার প্রশাসনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।
অঙ্গরাজ্যগুলোর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্ত সংবিধানের লংঘন।
ক্যালিফোর্নিয়ার কেন্দ্রীয় আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।
এতে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্টের এই নির্দেশ সংবিধানের ধারার সাথে সাংঘর্ষিক। সংবিধানের ধারায় কংগ্রেসকে সরকারি কোষাগারের চূড়ান্ত রক্ষক ও নিয়ন্ত্রক হিসেবে স্থান দেয়া হয়েছে।
এর আগে ক্যালিফোর্নিয়ার এটর্নী জেনারেল জাভিয়ের বেসেরাও ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আইনী লড়াই চালাবার ঘোষণা দিয়েছিলেন।
তিনি বলেন, তার ও অন্যান্য রাজ্যগুলোর পক্ষে এই মামলা করার আইনগত ভিত্তি রয়েছে। কারণ ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তের কারণে তারা অর্থ হারাচ্ছেন।
ক্যালিফোর্নিয়া, কলোরাডো, কানেকটিকাট, ডেলাওয়ারে, হাওয়াই, ইলিনইস, মেইনে, মেরিল্যান্ড, মিশিগান, মিনেসোটা, নেভাদা, নিউজার্সি, নিউ মেক্সিকো, নিউইয়র্ক, ওরেগন ও ভার্জিনিয়া ট্রাম্পের এই জরুরি অবস্থা জারির নির্দেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছে।

Posted by: | Posted on: February 19, 2019

সুযোগ কাজে লাগাতে পারবেন তো মুমিনুল?

মাহাবুবুর রহমান চঞ্চলঃ


ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ব্যাট করার সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান মোহাম্মদ মিঠুন। এই চোট তাঁকে যথেষ্ট ভোগাচ্ছে। তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে মিঠুনের খেলার সম্ভাবনা খুবই কম। মুশফিকুর রহিমের ব্যথা পেয়েছেন পাঁজরে। তাঁর খেলা নিয়েও তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। এই দোটানায় টেস্ট সিরিজের জন্য আগেই নিউজিল্যান্ডে যাওয়া মুমিনুল হককে নেওয়া হয়েছে ওয়ানডে দলে।


মুমিনুলকে দলে নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ম্যানেজার খালেদ মাসুদ, ‘মুশফিক-মিঠুনের স্ক্যান করানোর জন্য আমরা এখনো কোন স্লট পাইনি। কাল তাদের স্ক্যান হতে পারে। এরপরও বোঝা যাবে তারা খেলার মতো অবস্থায় আছে কিনা। আপনারা জানেন মুমিনুল দলের সঙ্গেই আছে শুরু থেকে। সাকিব আল হাসানের বিকল্প হিসেবে ১৫ জনের স্কোয়াডে এখন সে যুক্ত হয়েছে।’

সোমবার ক্রাইস্টচার্চে টেস্ট দলের সদস্যদের সঙ্গে অনুশীলন শেষে ডানেডিনে তৃতীয় ওয়ানডের ভেন্যুতে পৌঁছেছেন মুমিনুল। তিনি অবশ্য নিউজিল্যান্ড গেছেন বেশ আগেই। বিপিএলের ফাইনালের কারণে ওয়ানডে দলের কয়েকজন ব্যস্ত থাকায় টেস্ট দলের মুমিনুল ও সাদমান ইসলামকে আগেভাগেই পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল প্রস্তুতি ম্যাচের জন্য। মুমিনুল ওয়ানডে সিরিজের আগের প্রস্তুতি ম্যাচেও খেলছেন।

প্রথম দুই ওয়ানডেতে দলের সঙ্গে ছিলেন, বদলি ফিল্ডার হিসেবে মাঠেও নেমেছিলেন মুমিনুল। দ্বিতীয় ওয়ানডের পর ক্রাইস্টাচার্চেই টেস্ট দলের বাকি সদস্যদের সঙ্গে থেকে গিয়েছিলেন তিনি। এবার আনুষ্ঠানিকভাবে ওয়ানডে দলে যুক্ত হয়ে গেলেন ডানেডিন।

ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ব্যাট করার সময় পেশিতে টান পড়ে মিঠুনের, ওই অস্বস্তিতে ফিফটির পর আউটও হয়ে যান। প্রথম দুই ওয়ানডেই ফিফটি করা এই ব্যাটসমানকে শেষ ম্যাচে পাওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই কম। দলের ফিজিও প্রাথমিকভাবে জানিয়েছেন যদি মিঠুনের চোটের মাত্রা গ্রেড-ওয়ানও হয় তবে অন্তত সপ্তাহ খানেক বিশ্রামে থাকতে হতে পারে তাকে। সেক্ষেত্রে প্রথম টেস্টের আগে মাঠে নামতে পারছেন না তিনি। সেদিক থেকে ১০ ফেব্রুয়ারি প্রস্তুতি ম্যাচে পাঁজরে চোট পাওয়া মুশফিকের শেষ ম্যাচে খেলার সম্ভাবনা রয়েছে।