Main Menu

ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস ও ঐতিহ্য নিয়ে আরো বেশি কাজ করতে হবে : রাষ্ট্রপতি

(বাসস) : রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আজ নাট্যকার, চলচ্চিত্রকার, লেখক, গবেষক ও বুদ্ধিজীগণকে ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস ও ঐতিহ্য নিয়ে আরো বেশি কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আমি আশা করব আমাদের নাট্যকার, চলচ্চিত্রকার, লেখক ও বুদ্ধিজীগণ মহান ভাষা আন্দোলন নিয়ে আরো বেশি কাজ করবেন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘একুশের চেতনা বিশ্বের বিভিন্ন ভাষাভাষী মানুষের নিজস্ব ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষার অনুপ্রেরণা জয়ে উঠেছে। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস ও ঐতিহ্য ছড়িয়ে দিতে হবে।’
রাষ্ট্রপতি আজ বিকেলে বঙ্গভবনের দরবার হলে মহান ভাষা আন্দোলনের পটভূমিতে নির্মিত ‘ফাগুন হাওয়ায়’ চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ার শো দেখার আগে তাঁর বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
এ সময় চলচ্চিত্রকার ও সংশ্লিষ্ট সকলের প্রচেষ্টার কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘ফাগুন হাওয়া’ চলচ্চিত্রটি তরুণ প্রজন্মকে মহান ভাষা আন্দেলন ও ভাষার অধিকার রক্ষা করতে যাঁরা ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি বিশেষ অবদান রেখেছেন তাদের সম্পর্কে জানতে ভূমিকা রাখবে।’
তিনি বলেন, ‘এটি তরুণ প্রজন্মকে দেশত্ববোধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের চেতনায় আরো বেশি অনুপ্রাণিত করবে।’ মাতৃভাষা আন্দোলন এক অবিস্মরণীয় ঘটনা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ভাষা আন্দোলন কেবল আমাদের মাতৃভাষার অধিকারই নয় পাশাপাশি নিজস্ব জাতিসত্তা, স্বকীয়তা ও সাংস্কৃতিক স্বাতন্ত্র্য রক্ষারও আন্দোলন।’
রাষ্ট্রপতি তাঁর বক্তব্যের শুরুতে ভাষা শহীদ ও বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং স্বাধীনতার নেতৃত্বদানকারী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান।
তিনি বলেন, ‘বাঙালি জাতিই বিশ্বে প্রথম, যারা মাতৃভাষার দাবিতে জীবন দিয়েছেন। শহীদদের রক্ত বৃথা যায়নি। কারণ, বিশ্বের ১৯৩টি দেশে ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে উদযাপিত হচ্ছে।’
তিনি বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ক্ষুদ্র-নৃগোষ্ঠীর ভাষা সংরক্ষণের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে। তাছাড়া তাদের মাতৃভাষা সংরক্ষণ ও উন্নয়নে তাদের নিজস্ব ভাষায় পুস্তক প্রণয়ন ও পাঠদানের ব্যবস্থা করা হয়েছে।
‘ফাগুন হাওয়া’ চলচ্চিত্রের পরিচালক ও অভিনেতা তৌকির আহমেদ, ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, চ্যানেল আই-এর পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ এ সময় বক্তব্য রাখেন।






Related News