Main Menu

অভ্যন্তরীণ কোন্দলেই ভাঙ্গনের মুখে পড়বে বিএনপি : ওবায়দুল কাদের

বাসস : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আওয়ামী লীগের ভাঙ্গার দরকার হবে না, বিএনপি তাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জন্যই ভাঙ্গনের মুখে পড়বে। তিনি বলেন, ‘বিএনপিকে কখনো আমরা দূর্বল প্রতিপক্ষ ভাবি না। কিন্তু তারা তাদের কর্মকান্ডে দলটিকে এলোমেলো, লেজেগোবরে করেছে, বিএনপি তাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলেই ভাঙ্গবে।’ সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আজ দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে এলঙ্গো-হাটিকুমরুল-রংপুর মহাসড়কের ফোরলেন উন্নীত করনের চুক্তি স্বাক্ষর শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।
সরকার বিএনপিকে ভাঙ্গার জন্য নিরন্তরভাবে চেষ্টা করছে বলে করা বিএনপির নেতাদের অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, আন্দোলন ও নির্বাচনে বিএনপির যে পারফরমেন্স, তাতে সরকারের এমনকি প্রয়োজন আছে? বিএনপির এখন যে নড়বড়ে, এলোমেলো অবস্থা, এ রকম একটি দলকে ভেঙ্গে দিতে হবে? তিনি বলেন, ‘আমরা তো একটি শক্তিশালী বিরোধীদল চাই। বিএনপির যে কয়জনই আছে, যে নাম্বার সংসদ সদস্য তারা নির্বাচিত হয়েছে, আমরা তো তাদের স্বাগত জানিয়েছি সংসদে আসতে। বিএনপিকে অবশ্যই আমরা দূর্বল ভাবি না। কিন্তু তারা তাদের কর্মকান্ডে দলটিকে এলোমেলো, লেজেগোবরে করেছে।’ এই অবস্থায় বিএনপি যদি ভাঙ্গণের মুখে পড়েই যায়, তাহলে তাদের ঘরোয়া কোন্দলের জন্যই ভঙ্গবে। বিএনপিকে ভাঙ্গতে আমাদের কোন প্রয়োজন হবে না। বিএনপির মধ্যে ভাঙ্গনের সুর এমন ইঙ্গিত দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের আরো বলেন, ইতোমধ্যে তাদের নেতারা ভিন্ন ভিন্ন সূরে কথা বলছে। তাদের নিজেদের মধ্যেই ভাঙ্গনের সুর। যাদের নিজের ঘরেই শত্রু তাদের সঙ্গে শত্রুতা করার জন্য বাইরের শত্রুর প্রয়োজন আছে বলে কেউ মনে করেন না। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট টিকবে না বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ঐক্যফ্রন্ট একটা জগাখিচুড়ি। এই জগাখিচুড়ির ঐক্য থাকবে না। এটা সবাই জানে।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, ‘প্রতিদিন যদি তাদের (বিএনপি)’র অফিসে লক্ষ্য করা যায়, তাহলে দেখা যায় একে অন্যের সঙ্গে হাতাহাতি, সরকারের দালাল বলা, এসব তাদের নিত্যদিনের চিত্র। তারা নিজেরা কলহ-কোন্দলে জর্জরিত। এ অবস্থায় তাদের নিজেদের সঙ্গে শত্রুতা করার জন্য তারা নিজেরাই যথেষ্ঠ।’ জাতীয় সংসদে বিরোধীদলে কোন দল থাকছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, জাতীয়পার্টির সিদ্ধান্ত ইতোমধ্যে হয়েছে, জাতীয় সংসদে তারা বিরোধীদলের ভূমিকায় অবতীর্ণ হবেন। তিনি বলেন, বিএনপি সংসদে না আসলেও ইতোমধ্যে জাতীয়পার্টি বিরোধীদলের ভূমিকায় চলে গেছে। ১৪ দলের যারা সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন তারা শক্তিশালী বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করতে চান। কাজেই সংসদে বিরোধীদল থাকবেই। তারপরও বিএনপি যদি সংসদে আসে তাহলে আরো কন্ঠ যোগ হবে। বিরোধীদলের কন্ঠ সোচ্চার ও শক্তিশালী হবে। এটা গণতন্ত্রের স্বাস্থ্যের জন্যও ভালো।






Related News