Main Menu

‘বহু বছরের প্রচেষ্টায় দেশি ও বিদেশি শ্রমশক্তির মাধ্যমে স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ বাস্তবায়নের পথে। সেতুর ৪১টি ইস্পাতের তৈরি স্প্যান সোনার বাংলার উত্তর ও দক্ষিণ অঞ্চলকে সংযুক্তির মাধ্যমে চীন ও বাংলাদেশের বন্ধুত্বের বন্ধন অটুট রাখবে।’

যা লেখা ছিল পদ্মা সেতুর শেষ স্প্যানে

প্রেসওয়াচ রিপোর্টঃ পদ্মা সেতুর সর্বশেষ স্প্যান বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) দুপুরে পিয়ারে বসানো হয়। এর আগে বুধবার সকাল থেকেই চলে স্প্যান বসানোর প্রস্তুতি। স্প্যান বসানো নিয়ে পদ্মা সেতুর কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে দেশি-বিদেশি প্রকৌশলী ও কর্মীদের মধ্যে ছিল এক ধরনের উচ্ছ্বাস ও উদ্দীপনা।

সর্বশেষ স্প্যান ও স্প্যান বহনকারী ভাসমান ক্রেনে ব্যানার লাগিয়ে লেখা হয় বাংলাদেশ ও চীনের বন্ধুত্বের অটুট বন্ধনের কথা। ইংরেজি, মান্দারিন (চীনা) ও বাংলা এই তিন ভাষাতেই লেখা হয়, ‘বহু বছরের প্রচেষ্টায় দেশি ও বিদেশি শ্রমশক্তির মাধ্যমে স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ বাস্তবায়নের পথে। সেতুর ৪১টি ইস্পাতের তৈরি স্প্যান সোনার বাংলার উত্তর ও দক্ষিণ অঞ্চলকে সংযুক্তির মাধ্যমে চীন ও বাংলাদেশের বন্ধুত্বের বন্ধন অটুট রাখবে।’

 সেতুর ১২ ও ১৩ নম্বর পিয়ারের ওপর বসানো হয় ৪১তম স্প্যান (২-এফ)। ফলে ছয় দশমিক ১৫ কিলোমিটার সেতুর পুরোটাই দৃশ্যমান হলো। পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়েছিল ২০১৪ সালে। আর ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে বসানো হয়েছিল প্রথম স্প্যানটি। সেতুর মোট পিলার ৪২টি এবং এতে স্প্যান বসানো হয় ৪১টি। ছয় দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে সেতুটি।

সেতুর ওপরের অংশে যানবাহন ও নিচ দিয়ে চলবে ট্রেন। মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি লিমিটেড (এমবিইসি) এবং নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেক প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন। প্রকল্পের মোট বাজেট ৩০ হাজার ১৯৩ দশমিক ৩৯ কোটি টাকা।






Related News