Main Menu

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় জনগণের মধ্যে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে শিক্ষার্থীদের এগিয়ে আসতে হবে-রয়্যাল ভিসি অধ্যাপক প্রফুল্ল চন্দ্র সরকার

 ডেইলি প্রেসওয়াচ রিপোর্ট: রাজধানীর বনানীতে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় ‘করোনা সচেতনতায় মাস্ক নিশ্চিতকরণ কর্মসূচি’ পালন করেছে রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকার স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন।

অধ্যাপক ডঃ প্রফুল্ল চন্দ্র সরকার,ভিসি – রয়্যাল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা।ছবি- ডেইলি প্রেসওয়াচ

কর্মসূচির উদ্বোধন করেন সমাজ বিজ্ঞানী রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা’র  ভিসি অধ্যাপক ডঃ প্রফুল্ল চন্দ্র সরকার। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় জনগণের মধ্যে জনসচেতনতা সৃষ্টি করা প্রয়োজন। পৃথিবী আজ আক্রান্ত, সেখান থেকে নিজেদের রক্ষা করতে হলে একে অপরকে সহায়তা করতে হবে। যদি একজন ব্যক্তি আক্রান্ত হয়, তবে সে পরিবারকেও আক্রান্ত করতে পারে। তিনি আরও বলেন, পরিপূর্ণ মানুষ হিসেব গড়ে উঠতে হলে শিক্ষার প্রয়োজন। শিক্ষার মূল লক্ষ্যই সেবা করা, কমিউনিটিকে রক্ষা করা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রেজিস্ট্রার ড. মো. আবদুল হক তালুকদার বলেন, সারা বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যায় বাংলাদেশ এখনও ভালো অবস্থায় আছে। এজন্য আত্মতৃপ্তিতে না থেকে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় আমাদের আরও বেশি সচেতন থাকতে হবে এবং অন্যদেরও সচেতন করতে হবে। আগামীতে জনকল্যাণমূলক আরও বড় কর্মসূচিরও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

সাবেক সচিব ডঃ মো. আবদুল হক তালুকদার,রেজিস্ট্রার- রয়্যাল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা।ছবি- ডেইলি প্রেসওয়াচ

বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ঢাকার রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা ক্যাম্পাস, বনানী ১১ নম্বর রোড ও কাকলি বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

‘বিজয়ের এ মাসে, মাস্ক নিয়ে আমরা পাশে’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে স্বেচ্ছাসেবকরা তিনটি স্থানে কয়েকটি দলে বিভক্ত হয়ে মাস্ক বিতরণ শুরু করে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সুশৃঙ্খলভাবে যাত্রী-চালক-সহকারী ও পথচারীদের মধ্যে মাস্ক, গ্লাভস ও স্যানিটাইজার বিতরণ করেছে স্বেচ্ছাসেবকরা।

ইউনিভার্সিটির বিবিএ’র শিক্ষার্থী হিমিকা মাস্ক বিতরণকালে পথচারীদের সচেতনতামূলক উপদেশ দেন। তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে মাস্কই আমাদের ভরসা। তাই মাস্ক ছাড়া বাইরে বের হওয়া ঠিক নয়। তিনি সঠিকভাবে মাস্ক পরার ব্যাপারে সাধারণ মানুষকে নির্দেশনা দেন।

কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের সোমালিয়ান শিক্ষার্থী মোস্তফা বলেন, যারা মাস্ক ব্যবহার করছে না, তারা নিজেদের পাশাপাশি অন্য পথচারীদেরও ঝুঁকিতে ফেলছে। রাস্তায় বৃদ্ধরাও চলাচল করে, ফলে আমাদের করোনার সংক্রমণ রোধে করোনা সম্পর্কিত সচেতনতা বার্তা সারাবিশ্বেই পৌঁছে দেওয়া জরুরি।

স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট কৌশিকসহ মাসুম, শাকিল ও অন্য সেচ্ছাসেবক এ সময় কার্যক্রমটি সফলভাবে পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেন।কর্মসূচি বাস্তবায়নে সার্বিক সহযোগিতার জন্য রয়্যাল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা এল্যামনাই এসোসিয়েশনের আহবায়ক প্রকৌশলী  মেহেদি মাসুদ এবং যুগ্ম আহবায়ক প্রকৌশলী  মেহেদি হাসানকে স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট কৌশিকসহ মাসুম, শাকিল কৃতজ্ঞতা জানান ।

নিউজ/প্রেসওয়াচ/দি সিদ্দিকী






Related News