Main Menu

লাহোর কালান্দার্সের জয়ে তামিমের ১৮ রান

 ভিসার টানা দুই ছক্কা, ম্যাচ জিতলো লাহোর                 -ছবি: পিএসএল টুইটার

পেশোয়ার জালমিকে বিদায় করে দিয়ে পিএসএলের ফাইনালে ওঠার সম্ভাবনা ধরে রেখেছে তামিম ইকবালদের দল লাহোর কালান্দার্স। লাহোরের ৫ উইকেটের জয়ে তামিমের অবদান ১৮ রান। আগামীকাল দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার বা দ্বিতীয় এলিমিনেটর ম্যাচে মুলতান সুলতানসকে হারাতে পারলেই তারা ১৭ নভেম্বরের ফাইনালে করাচি কিংসের মুখোমুখি হবে।

শনিবার করাচি ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে মূলত শোয়েব মালিকের ২৪ বলে ৩৯, হার্ডাস ভিলোয়েনের ১৬ বলে ৩৭ এবং ফ্যাপ ডু প্লেসির ২৫ বলে ৩১ রানের সৌজন্যে ৯ উইকেটে ১৭০ রান করে পেশোয়ার জালমি। এক ওভার বাকি থাকতেই ৫ উইকেট খুইয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় লাহোর কালান্দার্স।

রান তাড়ার শুরুটা বাজে হয়েছিল লাহোরের। পাকিস্তানি বংশোদ্ভুত ইংলিশ পেসার সাকিব মাহমুদের তোপে ৩৩ রানে ৩ উইকেট হারায় তারা। অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান বেন ডাঙ্ক ও মোহাম্মদ হাফিজ করতে চতুর্থ উইকেটে ৫৫ রান যোগ করে ইনিংস মেরামত করেন। কিন্তু ডাঙ্ক ৮৮ রানের মাথায় আউট হয়ে গেলে পুরো দায়িত্ব এসে পড়ে হাফিজের ওপর। আর কী অসাধারণভাবেই না সেটি পালন করলেন ৪০ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান। দক্ষিণ আফ্রিকান অলরাউন্ডার ডেভিড ভিসাকে নিয়ে শেষ পর্যন্ত এক ওভার বাকি থাকতে ম্যাচ জিতিয়ে ফেরেন ‘প্রফেসর’, ৪৬ বলে গড়া অপরাজিত ৭৪ রানের ইনিংসটির জন্য ম্যান অব দ্য ম্যাচও হয়েছেন তিনি। ডেভিড ভিসা বাঁহাতি পেসার ও পেশোয়ার অধিনায়ক ওয়াহাব রিয়াজকে ১৯তম ওভারের পঞ্চম ও ষষ্ঠ বলে দুটি ছক্কা মেরে ম্যাচ শেষ করে দিয়েছেন। তিন ওভারে দরকার ছিল ৩৬ রান। শেষ দুই ওভারে প্রয়োজনীয় ২০ রান তারা তুলে নেন দ্বিতীয় শেষ ওভারেই।

টসজয়ী লাহোরের ইনিংসের গোড়াপত্তনে বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল ভালোই শুরু করেছিলেন। অন্তত বোঝাতে পেরেছেন যে ছন্দে আছেন। ১০ বলে ১৮ রান করে সাকিব মাহমুদের বলে ক্যাচ দেওয়ার আগে দুটি চার ও সাকিবকেই ফ্লিক করে ফাইন লেগের ওপর দিয়ে একমাত্র ছক্কাটি মেরেছেন তামিম। সাকিব মাহমুদ প্রথম তিনটি উইকেট তুলে নিলেও সবচেয়ে খরুচে বোলারও তিনি, চার ওভারে দিয়েছেন ৪১ রান।

পঞ্চমবারের প্রচেষ্টায় পাকিস্তান সুপার লিগের প্লে-অফে ওঠা লাহোর ফাইনাল থেকে আর এক পা দূরে। দলটি এবার প্রথমে ব্যাট করেও জিতছে, রান তাড়া করেও জিতছে। শনিবার দ্বিতীয় পিএসএলের চ্যাম্পিয়ন পেশোয়ারের ১৭০ রান সহজেই তাড়া করলো। পেশোয়ারের বিদায়ে একটি বিষয় এবার নিশ্চিত যে  নতুন চ্যাম্পিয়ন পাচ্ছে পিএসএল। টুর্নামেন্টে টিকে থাকা কোনও দলই যে আগে শিরোপা জেতেনি!

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পেশোয়ার : ২০ ওভারে ১৭০/৯ (মালিক ৩৯, ভিলোয়েন ৩৭, ডু প্লেসি ৩১, ইমাম-উল-হক ২৪, দিলবার ৩/৩৩, শাহীন আফ্রিদি ২/১৯, ভিসা ২/৪০) ও  লাহোর: ১৯ ওভারে ১৭১/৫ (হাফিজ ৭৪*, প্যাটেল ২০, ডাঙ্ক ২০, তামিম ১৮, সাকিব মাহমুদ ৩/৪১, ইমরান ১/১৬)






Related News