Main Menu

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে রাজশাহী মহানগর আ.লীগের বিক্ষোভ

ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনের নামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটূক্তি করার প্রতিবাদে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) বিকালে আয়োজিত এই বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

বিকালে কুমারপাড়ায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে এসে শেষ হয়। এরপর সেখানে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘ধর্ষকের কোনও দল নেই, ধর্ষক অপরাধী। ধর্ষণের বিচার হোক আমরাও চাই। কিন্তু ধর্ষণের বিচারের দাবিতে আন্দোলনের নামে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের রাস্তায় নামিয়ে রাজপথ উত্তপ্ত করছে জামায়াত-শিবির ও দেশবিরোধী চক্র। এই আন্দোলনে ধর্ষণের বিচার দাবির পাশাপাশি শেখ হাসিনা সরকারের পতন ঘটানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। এই ধরনের অপতৎপরতা হতে দেওয়া হবে না। আমি দলীয় নেতাকর্মীদের এই ধরনের অপতৎপরতা রুখে দেওয়ার আহ্বান জানাই।’

মেয়র আরও বলেন, ‘ধর্ষক যেই হোক না কেন, তাদের আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তি দেবে সরকার। ইতোমধ্যে আইন সংশোধন করে ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা সরকার মানেই উন্নয়ন, শেখ হাসিনা মানেই ধর্ষণমুক্ত বাংলাদেশ। ধর্ষণে জড়িতরা কেউ ছাড় পাবে না।’

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার বলেন, ‘দেশ যখন মহামারি কাটিয়ে ধীরে ধীরে সামনের দিকে অগ্রসর হচ্ছে, ঠিক সেই সময় বিএনপি-জামায়াত দেশের স্থিতিশীল অবস্থাকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে। ইতোমধ্যে যেসব ধর্ষকদের গ্রেফতার করা হয়েছে, তাদেরও বিচারের মাধ্যমে শাস্তি দেওয়া হবে। কাজেই ধর্ষণ বিরোধী আন্দোলনের নামে যারা দেশে অরাজক পরিস্থিতির সৃষ্টি করছে তাদের দাঁতভাঙা জবাব দেওয়া হবে।’

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন– রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, সাবেক উপপ্রচার সম্পাদক মীর ইশতিয়াক আহম্মেদ লিমন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা।






Related News