Main Menu

বৃহস্পতিবারও দিনভর ঢাকায় বিক্ষোভ

ঢাকায় বৃহস্পতিবারও (৮ অক্টোবর) বিভিন্ন স্থানে চতুর্থদিনের মতো ধর্ষণবিরোধী বিক্ষোভ হয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় প্রতিবাদী স্লোগান আর প্ল্যাকার্ডে ধর্ষকদের ফাঁসির দাবি জানিয়েছে শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে সমাজের নানা পেশার মানুষ। বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) রাজধানীর মোহাম্মদপুর, মিরপুর ১০, মিরপুর ১৪, উত্তরা, বেইলি রোডের ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে, শাহবাগ এবং ধানমন্ডি ২৭ নম্বরে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এদিন বেলা ১১টা থেকেই ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদকারীদের শাহবাগে জড়ো হতে দেখা যায়। প্রতিবাদ কর্মসূচি থেকে প্রতিদিন ‘একাত্তরের বাংলায় ধর্ষকের ঠাঁই নাই’, ‘মুক্তিযুদ্ধের বাংলায়, ধর্ষকের ঠাঁই নাই’, ‘প্রতিরোধের আগুন বুকে, ধর্ষকদের দাঁড়াও রুখে’, ‘পাড়া-মহল্লা থেকে ধর্ষকদের বয়কট কর, বয়কট কর’ ইত্যাদি স্লোগানে প্রতিবাদ জানান তারা। এসময় আন্দোলনকারীদের অনেকের মুখের মাস্কে ‘স্টপ রেপ’ লিখে প্রতিবাদ করতে দেখা যায়। এছাড়াও ধর্ষণবিরোধী বিভিন্ন প্রতিবাদী স্লোগান সম্বলিত ফেস্টুন ও চিত্রাঙ্কন করতেও দেখা যায় এসময়। তারা ধর্ষণের বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীরা সারাদেশে অব্যাহত ধর্ষণ প্রতিরোধে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ব্যর্থ উল্লেখ করে অবিলম্বে তার পদত্যাগ দাবি করেন।


সারাদেশে ধর্ষণ ও নারী নিপীড়নের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করেছে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা। দুপুর ১২টায় বেইলি রোডে প্রতিষ্ঠানটির কলেজ গেটের বাইরে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন তারা। বিক্ষোভে ধর্ষক ও নারী নিপীড়কদের দ্রুত বিচারের দাবি জানানো হয়। বিক্ষোভকারীরা বলেন, আমরা চাই না কেউই ধর্ষণের শিকার হোক। ধর্ষণ, নিপীড়ন কেবল মেয়েদের ক্ষেত্রে না, ছেলেদেরও আমরা মাদ্রাসায় ধর্ষণের শিকার হতে দেখি। ছেলে-মেয়ে উভয়কেই নিরাপত্তা দিতে হবে। একটা শিশুও যেন আর যৌন নিপীড়ন, ধর্ষণের শিকার না হয়।৩ দফা দাবিতে মিরপুর ১০ নম্বর চত্বরে চতুর্থ দিনের মতো বিক্ষোভ করেছে শিক্ষার্থীরা। উই ওয়ান্ট জাস্টিস স্লোগানে ধর্ষকদের জন্য সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করার দাবি জানান। এছাড়া উত্তরা ও ধানমন্ডি ২৭ নম্বরেরও ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করার দাবিতে পালিত হয়েছে কর্মসূচী।






Related News