Main Menu

ভ্যাট সংক্রান্ত এসআরও বাতিল চায় দোকান মালিকরা

করোনা পরিস্থিতিতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি দোকান মালিক ও আমদানিকারকরা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত জানিয়ে ব্যবসায়ীদের সার্কিক দিক বিবেচনা করে বর্তমান ১২১, ১২২ ও ১৩০ (সংযোজিত প্রত্যায়ন পত্র সংক্রান্ত) এসআরও বাতিল করার অনুরোধ জানিয়েছে ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতি। ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই’র এর প্রতি আবেদন জানিয়ে তারা বলেছে, ভ্যাট সংক্রান্ত যে আইন পাস করা হয়েছে তা ব্যবসায়ীদের পক্ষে বহন করা সম্ভব নয়।

বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর রুনি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অনুরোধ জানায় তারা।

সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সভাপতি তৌফিক এহেসান বলেন, ‘ব্যবসায়ীদের ভ্যাট সমস্যা নিয়ে জাতীয় সংসদে ২০১৭ সালের ৩০ জুলাই ঘোষণা করা হয়, যে সকল দোকান বা ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানে টার্নওভার বাৎসরিক ৫০ লাখ টাকার নিচে ওই সব ব্যবসায়ীরা ভ্যাটের আওতামুক্ত থাকবেন। কিন্তু বর্তমানে এনবিআর ও ভ্যাট আদায়কারী সংস্থা সমূহ সরকার ঘোষিত এই সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে ছোট বড় সকল ব্যবসায়ী ও প্রতিষ্ঠান থেকে ভ্যাট আদায় করার জন্য নথিপত্র জব্দ করেছে। এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ ব্যবসায়ীরা সামাজিক ও পরিবারিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন হচ্ছে এবং আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সকল দোকান ব্যবসায়ীরা খুচরা পর্যায়ে ভ্যাট প্রদান করতে প্রস্তুত। তবে তা-হতে হবে সুশৃঙ্খল ও ব্যবসায়ীদের প্রতি সহনশীল।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আরিফুর রহমান টিপু, সহ-সভাপতি আবুল কাশেম পাটোয়ারী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এস. এম সাইদ সুফি, জুয়েল আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল হাসান মাহমুদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাসুদ কাদের মনা, কার্যকরী সদস্য আবুল কাশেম খান ঝন্টুসহ ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতির ৪৩টি জোনের ব্যবসায়ী নেতারা।






Related News