Main Menu

অবশেষে আফগান শিশুদের পরিচয়পত্রে যুক্ত হচ্ছে মায়ের নাম

নারীদের নাম প্রকাশ নিয়ে দীর্ঘদিনের সংস্কার ভেঙে অবশেষে সন্তানের জাতীয় পরিচয় পত্রে বাবার পাশাপাশি মা হিসেবে প্রথমবারের মতো যুক্ত হতে যাচ্ছে আফগানিস্তানের নারীদের নাম। বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) এসংক্রান্ত আইনের সংশোধনীতে স্বাক্ষর করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি। নারীদের পরিচয়ের স্বীকৃতির দাবিতে দীর্ঘ দিন থেকে চলা আন্দোলনের জেরে ওই সংশোধনী আনা হয়। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।.

আফগানিস্তানের আইন অনুযায়ী দেশটির পরিচয়পত্রে কেবলমাত্র বাবার নাম লেখা থাকতো। দেশটিতে প্রকাশ্যে নারীদের নাম উচ্চারণ প্রথাগভাবে অবমাননাকর বলে বিবেচনা করা হয়। ডাক্তারের চিকিৎসাপত্রে কয়েকজন নারী নিজেদের নাম ব্যবহার করায় দেশটির কয়েকজন নারীকে মারধরের ঘটনা ঘটে।

এসব ঘটনার জেরে প্রায় তিন বছর আগে ‘আমার নাম কোথায়’ হ্যাশট্যাগের অধীনে একটি প্রচারণা শুরু হয়। বিশ্বজুড়ে সেলিব্রেটি আর পার্লামেন্ট সদস্যদের মধ্যে সাড়া ফেলে দেয় ওই প্রচারণা। ওই প্রচারণায় পরিচয়পত্রে বাবার পাশাপাশি মায়ের নাম প্রকাশের আহ্বান জানানো হয়।

প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি এ সংক্রান্ত আইনের সংশোধনীতে স্বাক্ষর করার পর ‘আমার নাম কোথায়’ প্রচারণার প্রতিষ্ঠাতা লালেহ ওসমানি বলেন, ‘দীর্ঘদিনের সংগ্রামের পর এমন ফলাফলে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। কোনও সন্দেহ নেই যে সবার ঐক্যবদ্ধ অবিরাম সংগ্রামের ফসল আজকে আমাদের এই বিজয়।’ আফগান প্রেসিডেন্ট ও তার সহকারীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান তিনি।

আফগান মন্ত্রিসভার আইন সংক্রান্ত কমিটি বলছে, পরিচয়পত্রে মায়ের নাম যুক্ত করার সিদ্ধান্ত লৈঙ্গিক সমতা প্রতিষ্ঠা এবং নারী অধিকার উপলব্ধির ক্ষেত্রে এক বিশাল পদক্ষেপ






Related News