Monday, May 6th, 2019

now browsing by day

 
Posted by: | Posted on: May 6, 2019

গণমাধ্যমকর্মীদের হঠাৎ ছাঁটাই কোনোভাবেই সমীচীন নয় : তথ্যমন্ত্রী

(বাসস ) : তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘প্রিন্ট বা ইলেকট্রনিক কোনো গণমাধ্যমকর্মীদেরই হঠাৎ ছাঁটাই কোনোভাবেই সমীচীন নয়। তাদের সংসার ও জীবনের কথা ভাবতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘একান্ত প্রয়োজন হলে আগে থেকে নোটিশ এবং কয়েক মাসের বেতন দেয়ার বিষয়টি অবশ্যই বিবেচনা করা উচিত।’
তথ্যমন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে প্রয়াত বরেণ্য সাংবাদিক পিআইবির সাবেক মহাপরিচালক মো. শাহ আলমগীর স্মরণে নাগরিক শোকসভায় বক্তৃতাকালে একথা বলেন।
বিশিষ্ট সাংবাদিক আবেদ খানের সভাপতিত্বে শোকসভায় বক্তব্য রাখেন রাশেদ খান মেনন এমপি, হাসানুল হক ইনু এমপি, শফিকুর রহমান এমপি, প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম, সাংবাদিক মোজাম্মেল হক বাবু, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি আবু জাফর সূর্য, সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী এবং প্রয়াত শাহ আলমগীরের স্ত্রী ফওজিয়া বেগম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক রহমান মুস্তাফিজ।
তথ্যমন্ত্রী এ সময় প্রয়াত শাহ আলমগীরের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, ‘তার কাছ থেকে আমাদের বহু কিছু শেখার আছে। তিনি এমন মানুষ যার কোনো শত্রু ছিলো না, থাকলেও তারা তাকে ভালোবাসতো।’
উল্লেখ্য গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ক্যান্সার চিকিৎসাধীন শাহ আলমগীর শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

Posted by: | Posted on: May 6, 2019

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাসের হার ৮২.২০ শতাংশ

(বাসস) : চলতি বছরে এসএসসি, দাখিল ও এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষায় পাসের হার ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ। গতবার এই হার ছিল ৭৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ। এই পরীক্ষা ২ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে ১০ মার্চ শেষ হয়।
আজ শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ফলাফল প্রকাশ করেন।
এবার মোট জিপিএ- ৫ পেয়েছে ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন। গতবার জিপিএ ফাইভ পেয়েছিল ১ লাখ ১০ হাজার ৬২৯ জন।
এবার মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২১ লাখ ২৭ হাজার ৮১৫ জন। এর মধ্যে পাস করেছে ১৭ লাখ ৪৯ হাজার ১৬৫ জন। গতবার যা ছিল ১৫ লাখ ৭৬ হাজার ১০৪।এবার পাশের সংখ্যা বেড়েছে ১ লাখ ৭৩ হাজার ৬১ জন।
আটটি সাধারণ ,মাদরাসা ও কারিগরী শিক্ষাবোর্ডের এবার মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২১ লাখ ২৭ হাজার ৮১৫। গতবছর এই সংখ্যা ছিল ২০ লাখ ২৬ হাজার ৫৭৪ জন। এবার বৃদ্ধি পেয়েছে ১ লাখ ১ হাজার ২৪১ জন।
শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন মাধ্যমে ফল জানতে পারবেন। নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইট ছাড়াও www.educationboardresults.gov.bd ঠিকানায় ফলাফল পাওয়া যাবে। মোবাইল ফোনে এসএমএসের মাধ্যমেও ফল জানা যাবে।
মোবাইল থেকে ফল জানতে মেসেজ অপশনে গিয়ে পরীক্ষার নাম (ssc/dakhil) লিখে স্পেস দিয়ে ইংরেজিতে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পাসের সন ২০১৯ লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। ফিরতি মেসেজে ফলাফল জানানো হবে।