Main Menu

দুই দিনের প্রচেষ্টায় আজ সকালে বসানো হলো পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান।পদ্মা সেতুর ৪.৮০ কিলোমিটার দৃশ্যমান

দুই দিনের প্রচেষ্টায় রবিবার (১১ অক্টোবর) সকালে বসানো হলো পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান। চার মাস আগে ১০ জুন সর্বশেষ ৩১তম স্প্যানটি স্থাপন করা হয়। ৩২তম স্প্যানটি মাওয়া প্রান্তে পিয়ার-৪ ও ৫ এর ওপর বসানো হয়েছে। এর ফল সেতুর ৪.৮০ কিলোমিটার দৃশ্যমান হলো। পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী ও প্রকল্প ব্যবস্থাপক দেওয়ান আব্দুল কাদের এ খবর জানিয়েছেন।
এর আগে মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের মাওয়ায় অবস্থিত কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডের স্টিল ট্রাস জেটি থেকে শনিবার দুপুরে স্প্যানটি বহন করে নিয়ে আসে ভাসমান ক্রেন তিয়ান-ই রওনা দেয়। নদীর স্রোত অনুকূলে না থাকায় ক্রেনের নোঙর করতে অসুবিধা হয় এবং স্প্যানটি পজিশনিং করতে না পারায় শনিবার স্থাপন করা যায়নি।

পদ্মা সেতুতে বসানো হলো ৩২তম স্প্যান
নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, ৩২তম স্প্যান বসানোর পর সেতুর ৪.৮০ কিলোমিটার দৃশ্যমান হলো। আর মাত্র ৯টি স্প্যান বাকি থাকলো। তার মধ্যে আটটি স্প্যান প্রস্তুত রয়েছে। ৩২টি স্প্যানের মধ্যে মাওয়া প্রান্তে স্থাপন করা হয়েছে ১১টি, মাঝের স্প্যান স্থাপন করা হয়েছে একটি ও জাজিরা প্রান্তের ২০টি স্প্যানের সবক’টি স্থাপন করা হয়েছে।
প্রকৌশলীরা জানান, অক্টোবরের প্রথম দিকে সবক’টি স্প্যান বসানো শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু, বর্ষা মৌসুমে পদ্মার পানি ৬ মিটারের বেশি বৃদ্ধি পাওয়ায় স্রোতের তীব্রতা বেড়ে যায়। তীব্র স্রোতে ভাসমান ক্রেন নোঙর করতে অসুবিধা হয়। এতে সিডিউল অনুযায়ী স্প্যান বসানো যায়নি। তবে, আশা করছেন ডিসেম্বর নাগাদ সবগুলো স্প্যান বসানোর কাজ সম্পূর্ণ করা যাবে।

পদ্মা সেতুতে বসানো হলো ৩২তম স্প্যান
২০১৪ সালের ডিসেম্বরে ৬.১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতল পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। মূল সেতু নির্মাণের কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড (এমবিইসি) ও নদীশাসনের কাজ করছে চীনের আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।






Related News