Main Menu

বর্তমান সরকারের মেয়াদেই তিস্তা চুক্তি বাস্তবায়ন হবে: পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক সব বিষয়ে বিবেচনা করে ও নিজ দেশের স্বার্থ অক্ষুণ্ন রেখে যা করার দরকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাই করছেন বলে মন্তব্য করেছেন পা‌নি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষের সব আশা, আকাঙ্ক্ষা ও আস্থা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ঘিরে। এ সরকারের মেয়াদেই বাংলাদেশের স্বার্থ সংরক্ষণ করে ভারতের সঙ্গে তিস্তা চুক্তি বাস্তবায়ন করা হবে।’

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ‌গোপালগঞ্জের টু‌ঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

উপমন্ত্রী বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে গঙ্গা চুক্তি করতে পারেনি। খালেদা জিয়া গঙ্গা চুক্তির বিষয়টি ভুলে গিয়েছিলেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভুলেননি, চুক্তি করে ৩৫ হাজার কিউসেক পানি বাংলাদেশে নিয়ে এসেছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সব আন্তর্জাতিক সমস্যার সমাধান হয়েছে।

উপমন্ত্রী আরও বলেন, পশ্চিম গোপালগঞ্জ সমন্বিত পানি উন্নয়ন প্রকল্প ও গোপালগঞ্জের নদী-খাল পুনঃখননসহ ১৩ টি প্রকল্পে প্রায় সাড়ে ১১শ’ কোটি টাকার ডিপিপি অনুমোদনের কাজ চলছে। এই ডিপিপি একনেকে অনুমোদন হলে আগামী বর্ষা মৌসুমের আগেই গোপালগঞ্জের এসব প্রকল্পের কাজ শেষ হবে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধের বেদিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে গভীর শ্রদ্ধা জানান পা‌নি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম। তিনি বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের নিহত সদস্যদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন।

এরপর তিনি মুজিববর্ষ উপলক্ষে দেশব্যাপী বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে সমাধি সৌধের পাশ দিয়ে প্রবাহিত টুঙ্গিপাড়া খাল পাড়ে গাছের চারা রোপণ ও গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গোবরা ইউনিয়নে মধুমতি নদীর ভাঙন প্রতিরক্ষা কাজ পরিদর্শন করেন।

এ সময় মন্ত্রী পত্নী তাহমিনা শিলু, প্রধান প্রকৌশলী ওয়াহেদ উদ্দিন চৌধুরী, মন্ত্রীর একান্ত সচিব কামরুল ইসলাম, গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান সোলায়মান বিশ্বাস, গোপালগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হালিম সালেহী, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মীর শাহীনুর রহমান, সাদেকুল আলম চয়ন, মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাহাবুদ্দিন মোল্লা, শরিয়তপুর জেলার শখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির মোল্লা, সাধারন সম্পাদক আতিকুর রহমান মানিক সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরে দুপুর সাড়ে ১২ টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে কুইক সার্ভিস ডেলিভারি পয়েন্টের উদ্বোধন করেন উপমন্ত্রী। এ সময় জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী এমদাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ লুৎফর রহমান বাচ্চুসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী এবং প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।






Related News