Main Menu

শ্রীলঙ্কা সফরে ২২ জনের দল

শ্রীলঙ্কা সিরিজের প্রস্তুতিতে দলগত অনুশীলন শুরু হয়নি। তবে দেশের প্রায় সব ভেন্যুতে জাতীয় দল ও পুলে থাকা ৩৮ ক্রিকেটার ব্যক্তিগতভাবে অনুশীলন করছেন বিসিবির ব্যবস্থাপনায়। চলতি মাসে কয়েকদিন দলীয় অনুশীলন করে ২৪ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কার উদ্দেশে উড়াল দেওয়ার কথা মুমিনুল হকদের। সাধারণত ১৫ জনের স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়, কিন্তু করোনা ঝুঁকির কারণে এবারের দলটি বেশ বড়ই হচ্ছে।

ঠিক কতজন নিয়ে দ্বীপ দেশটিতে উড়াল দেবে বাংলাদেশ দল, আজ (বুধবার) সেটির ধারণা দিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান, ‘ঢাকা ও ঢাকার বাইরে ৩৮ জনের মতো খেলোয়াড় অনুশীলন করছে। আপাতত একটা স্কোয়াড আমরা তৈরি করেছি। এই মুহূর্তে সেটি ২৮ জনের, তবে আমরা সেটা কমিয়ে ২২ জনে নিয়ে আসবো। শ্রীলঙ্কায় ২১-২২ জন যাবে।’

বাংলাদেশ দলকে শ্রীলঙ্কায় কতদিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত হয়নি। আকরাম বললেন, ‘কোয়ারেন্টিনের বিষয়টি এখনও শ্রীলঙ্কা আমাদের চূড়ান্ত করেনি। কিন্তু আমরা আমাদের কাজ করে যাচ্ছি। আপাতত ১৪ দিন মাথায় রেখেই কাজ করছি, কম হলে তো ভালোই।’

শুধু তা-ই নয়, লঙ্কান বোর্ড তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের সূচিও এখনও চূড়ান্ত করতে পারেনি। কবে, কোথায় ম্যাচগুলো হবে সে ব্যাপারে বিসিবি অন্ধকারে। তবুও আকরাম একটি ধারণা দিলেন, ‘শ্রীলঙ্কান বোর্ড একটা সম্ভাব্য সূচি দিয়েছে, ফাইনাল নয়। শেষ টেস্ট কলম্বোতে হবে, প্রথম দুটি ক্যান্ডিতে হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।’

দুই পেসার এবাদত হোসেন ও আবু জায়েদ রাহী টেস্ট দলের নিয়মিত মুখ। তবে দেশের বাইরে টেস্ট বলেই নির্বাচকদের ভাবনায় তৃতীয় সিমার। এ ব্যাপারে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন বলেছেন, ‘কিছু পেস বোলার আছে যাদের আমরা টেস্ট ক্রিকেটের জন্য তৈরি করে রাখছি। ৪-৫ জনের একটা তালিকা করা আছে। টিম কম্বিনেশনের কারণে আমাদের এখানে দুই পেসার খেলে থাকে। বাইরে গেলে আমরা তিন পেসারের কথাই চিন্তা করি। তো টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে বসে এই কম্বিনেশনটা তৈরি করা হবে।’






Related News