Main Menu

বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরে পোশাক শিল্পে বিপ্লবের সম্ভাবনা

উপমহাদেশে সব থেকে বড় ইকোনমিক জোনের একটি হতে যাচ্ছে মিরসরাই ইকোনমিক জোন। প্রাথমিক ভাবে ৩০ হাজার একর জমির উপর গঠিত এই ইকোনমিক জোনের ভেতর মাত্র ৫শ একর জমি বরাদ্ধ দেয়া হয়েছিল বিজিএমইএকে।

কিন্তু এই ইকোনমিক জোন পুরোপুরি চালু না হলেও ইতোমধ্যে ৫শ একর জমির ৪৪১ একরই বরাদ্ধ নিয়ে নিয়েছে বিভিন্ন পোশাক তৈরি প্রতিষ্ঠানগুলো। বরাদ্দের আগে এতো দ্রুত জমিগুলোর বরাদ্দ শেষ হয়ে যাবে তা ভাবতে পারেনি অনেকেই।

ইতিমধ্যে ৭০টি কোম্পানি জমি নেবার জন্য টাকা জমা দিয়েছে। চালু হলে এটি হবে দেশের সবচেয়ে বড় শিল্প এলাকা।

এখানে অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেপজা) ১ হাজার ১৫০ একর, শিকদার গ্রুপ, বসুন্ধরা ও গ্যাসমিন মিলে এসবিজি ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠার জন্য সরকারি-বেসরকারি অংশীদারত্বের (পিপিপি) ভিত্তিতে ৫শ একর, বসুন্ধরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠার জন্য বসুন্ধরা গ্রুপ ৫শ একর এবং পিএইচপি গ্রুপ পিএইচপি ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক প্রতিষ্ঠার জন্য ৫শ একর জমি নিয়েছে। এছাড়া অনেক দেশি ও বিদেশি প্রতিষ্ঠানও কারখানা বানানোর জন্য জমি নিয়েছে।

সব মিলিয়ে বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরে ৫৫টি শিল্পপ্রতিষ্ঠানের অনুকূলে এ পর্যন্ত ৬ হাজার ৭৭ একর জমি বরাদ্দ দিয়েছে বেজা। এসব প্রতিষ্ঠানের প্রস্তাবিত বিনিয়োগের পরিমাণ প্রায় ১ হাজার ২৫৯ কোটি মার্কিন ডলার বা ১২.৫৯ বিলিয়ন ডলার। টাকার অঙ্কে যা প্রায় ১ লক্ষ ৫ হাজার কোটি টাকা। এতে প্রায় সাত লাখ মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে।

মিরসরাইয়ে ইতিমধ্যে ২০ একর জমিতে এশিয়ান পেইন্টস, ১০ একর জমিতে আরমান হক ডেনিম, ১০ একর জমিতে মডার্ন সিনটেক্স এবং ১০ একর জমিতে জুজু জিনইউয়ান কেমিক্যাল কারখানা তৈরির কাজ শুরু করেছে।

ইতিমধ্যে জমি নিয়েছে স্টারলিং ডেনিমস, বান্দু ডিজাইন, স্টারলিং স্টাইলস, দ্যাটস ইট স্পোর্টসওয়্যার, অ্যাপারেল গ্যালারি, আরটিস্টিক ডিজাইন, ইপিলিয়ন স্টাইল, গ্লোবাল শার্ট, মেনস ফ্যাশন, ইউনিগিয়ার লিমিটেড, এসকিউ সেলসিয়াস, মার্স স্পোর্টসওয়্যার, গ্রাফিকস টেক্সটাইল, জেনেসিস ফ্যাশনস্, কলম্বিয়া গার্মেন্টস, কলম্বিয়া অ্যাপারেলস, আরডিএম অ্যাপারেলস, ডব্লিউ অ্যাপারেলস, ব্যাবিলন গার্মেন্টস, ব্যাবিলন ক্যাজুয়ালওয়্যার, ক্লিফটন কন, ক্লিফটন অ্যাপারেলস, ফোর এইচ ফ্যাশন, চার্ম ফ্যাশন, ভ্যানকট লিমিটেড, করিম টেক্সটাইল, এসএফ ডেনিম অ্যাপারেলস, মজুমদার গার্মেন্টস, তুসুকা ট্রাউজারস, ভিজ্যুয়াল নিটওয়্যার, এনার্জিপ্যাক ফ্যাশন ও ইভা সোয়েটারস।

আরও রয়েছে অ্যালপস্ অ্যাপারেলস, আরও টেক্সটাইল মিলস, ফাউন্টেন গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচারিং, পশ গার্মেন্টস, মেসার্স এআরএল অ্যাপারেলস, স্যামস অ্যাটায়ার লিমিটেড, ফারসিয়িং নিট কম্পোজিট, ডেনিম ফ্যাশনস, ইএইচ ফেব্রিকস, প্যাসিফিক কটন, কটনলাইন বিডি, কটন ডাইং অ্যান্ড ফিনিশিং মিলস, তুসুকা জিনস, উরানাস অ্যাপারেলস, আফরাহ ড্রেসেস, ওয়েল ফ্যাশন, তাফফ অ্যাপারেলস, ইমেজ গার্মেন্টস, শামসের রাজিয়া ফ্যাশন ও শামসের অ্যাপারেলস।

শানশিন কোম্পানি (বিডি) লিমিডেট, মাস্ক ট্রাউজারস, আরআর ফ্যাশন, টাওয়েল টেক্স লিমিটেড, টিবিএইচ ফ্যাশনটেক্স, আদিলা অ্যাপারেলস, এস-সিক্স ফ্যাশনস, অ্যাডভান্স ওয়ার্ল্ড, আল-ইত্তেফাক টেক্সটাইল, বিএলপি ওয়ার্ম ফ্যাশন, গার্মেন্টস হোম (প্রা.) লিমিটেড, প্রোগ্রেসিভ অ্যাপারেলস ইন্ডাস্ট্রিজ, মিলো ফ্যাশনস, কে গার্মেন্টস, চৌধুরী ফ্যাশন ওয়্যার, মদিনা গার্মেন্টস ও আরএনএসসিও সোয়েটারস লিমিটেড বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরে জমি নিয়েছে।

মূলত এই জোনকে ঘিরে রয়েছে আলাদা একটি সমুদ্র বন্দর যা জাপানের সজিত গ্রুপ নির্মাণ করবে। ভবিষ্যতে এটিই হবে বাংলাদেশের শিল্প রাজধানী তাতে কোন সন্দেহ নাই।






Related News