স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা

now browsing by category

 
Posted by: | Posted on: September 3, 2021

২ কোটি ৭২ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে।।মজুত এক কোটি ১৬ লাখ

২ কোটি ৭২ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে।।মজুত এক কোটি ১৬ লাখ

মাহবুব বাশার ঃ

এ পর্যন্ত টিকা এসেছে মোট ৩ কোটি ৮৯ লাখ ১৩ হাজার ৭৩০ ডোজ। এরমধ্যে ২ কোটি ৭২ লাখ ৩৫ হাজার ৫৪৮ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ, এই মুহূর্তে টিকা মজুত আছে এক কোটি ১৬ লাখ ৭৮ হাজার ১৮২ ডোজ। এখন পর্যন্ত প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ১ কোটি ৮৮ লাখ ৭৫ হাজার ৯১৭ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ৮৩ লাখ ৫৯ হাজার ৬৩১ জন। এগুলো দেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকা, চীনের তৈরি সিনোফার্ম, ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিন। বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের দেওয়া তথ্যমতে, বৃহস্পতিবার অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ পেয়েছেন ১ লাখ ১৪ হাজার ৯৩ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৭ হাজার ১৩০ জন। এখন পর্যন্ত অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দেওয়া হয়েছে মোট ১ কোটি ১৩ লাখ ৯৪ হাজার ৪৯৯ ডোজ।

পাশাপাশি আজ ফাইজারের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ১ হাজার ১০৫ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৭১ জন। আর এখন পর্যন্ত এই টিকা দেওয়া হয়েছে মোট ৯৮ হাজার ৯৮৪ ডোজ।

এছাড়া এখন পর্যন্ত সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হয়েছে মোট ১ কোটি ২২ লাখ ৯৯ হাজার ৩২৩ ডোজ। এরমধ্যে আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৮৩ হাজার ৮১৫ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৬৭ হাজার ৯২১ জন।

মডার্নার টিকা এখন পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে মোট ৩৪ লাখ ৪২ হাজার ৭৪২ ডোজ। এরমধ্যে আজ প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ১২ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ৭৬ হাজার ১৩০ জনকে।

এছাড়া সারা দেশে টিকার জন্য বৃহস্পতিবার পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৩ কোটি ৮৫ লাখ ৭৩ হাজার ৩৪৯ জন।

Posted by: | Posted on: September 1, 2021

অন্তঃসত্ত্বা মায়েদের এসএমএস ছাড়াই টিকা দেওয়ার নির্দেশ

২ কোটি ৭২ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে।।মজুত এক কোটি ১৬ লাখ

প্রেস ওয়াচ রিপোর্টঃ

করোনাভাইরাসের টিকার জন্য এসএমএস পাওয়ার ক্ষেত্রে বয়স্ক জনগোষ্ঠী এবং ১৮ বছর ঊর্ধ্বের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। পাশাপাশি অন্তঃসত্ত্বা নারীদের এসএমএস ছাড়াই টিকা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ও লাইন ডিরেক্টর এবং কোভিড ১৯ ভ্যাকসিন ব্যবস্থাপনা টাস্কফোর্স কমিটির সদস্য ডা. মো. শামসুল হক স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় এ কথা বলা হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়, কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রিপেয়ার্ডনেস অ্যান্ড ডিপ্লয়মেন্ট কোর কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নিবন্ধিত বয়োজ্যেষ্ঠ নাগরিক ও ১৮ বছর ঊর্ধ্ব শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এসএমএস প্রদান করে দ্রুত কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রদান করতে হবে।

এছাড়া, নিবন্ধিত অন্তঃসত্ত্বা নারী ও স্তন্যদানকারী মায়েদের এসএমএস ছাড়াই কেন্দ্রে আসামাত্র রেজিস্ট্রেশনকৃত নির্ধারিত কেন্দ্র থেকে ভ্যাকসিন প্রদান করতে হবে। অন্তঃসত্ত্বা নারীদের ভ্যাকসিন গ্রহণের আগে অবশ্যই (গর্ভ ধারণের প্রমাণস্বরূপ) এএনসি কার্ড/ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র দেখাতে হবে এবং নির্ধারিত সম্মতিপত্রে স্বাক্ষর করতে হবে।

Posted by: | Posted on: August 30, 2021

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে ১০ কোটি টিকার চুক্তি হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রেস ওয়াচ রিপোর্টঃ

বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, আমরা দেশের প্রতিটি মানুষের জন্য টিকার ব্যবস্থা করবো। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে নতুন করে সাড়ে ১০ কোটি টিকার চুক্তি হয়েছে। এ ছাড়া চীন থেকে সাড়ে সাত কোটি টিকা আনার চুক্তি করেছি।

রবিবার (২৯ আগস্ট) দুপু‌রে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার গড়পাড়ার শুভ্র সেন্টারে উপজেলা যুবলীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার ব্যাপারে তাগিদ দিয়েছেন। দেড় বছর ধরে স্কুল-কলেজ বন্ধ। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের টিকা দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, মেডিক্যালে লেখাপড়া কিন্তু বন্ধ হয়নি। ইতোমধ্যে এমবিবিএস প্রথম বর্ষের পরীক্ষা নিয়েছি। দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষার ব্যবস্থাও হয়ে গেছে। পঞ্চম বর্ষের পরীক্ষা চলমান।

ভারতসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশের করোনা পরিস্থিতির সঙ্গে বাংলাদেশের তুলনা করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ওসব দেশের সরকার করোনা নিয়ে দিশেহারা। মালয়েশিয়া ও থাইল্যান্ডের মতো দেশ করোনার টিকার ব্যবস্থা করতে পারেনি। অথচ প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় আমরা করোনা মোকাবিলা করে যাচ্ছি। করোনা পরীক্ষার একটি ল্যাব থেকে এখন সাড়ে সাতশ’ ল্যাব হয়েছে। দেশের মানুষ করোনা পরীক্ষা করতে পারছেন। রাস্তাঘাটে পড়ে কেউ মারা যায়নি। হাসপাতালে পর্যাপ্ত বেড রয়েছে। ওষুধপত্রসহ সবকিছুর ব্যবস্থা রয়েছে। অথচ ভারতের মতো দেশে অক্সিজেনের অভাবে অনেক মানুষ মারা গেছে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম, সহ-সভাপতি রমজান আলী, যুগ্ম সম্পাদক সুলতানুল আজম খান আপেল, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইসরাফিল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আফসার উদ্দিন সরকার ও সদর যুবলীগ সভাপতি খলিলুর রহমান প্রমুখ।

Posted by: | Posted on: August 28, 2021

শনাক্তের হার নেমে এলো ১৩-এর ঘরে

প্রেস ওয়াচ রিপোর্টঃ

গত ২৪ ঘণ্টায় পরীক্ষার বিপরীতে করোনায় শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ১২ দশমিক ৭৮ শতাংশ, যা গত ৭৯ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন।

এর আগে গতকাল রোগী শনাক্তের হার নেমে আসে ১৪-এর ঘরে (১৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ)। তার আগের দিন (২৫ আগস্ট) শনাক্তের হার নামে ১৫ শতাংশের ঘরে। টানা ৭০ দিন পর দেশে করোনায় শনাক্তের হার ১৫ শতাংশের কম হয়। সেদিন রোগী শনাক্তের হার ছিল ১৪ দশমিক ৭৬ শতাংশ, যা ১৫ জুনের পর সর্বনিম্ন।

শুক্রবার (২৭ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদফতরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন তিন হাজার ৫২৫ জন। এর আগে গত ১৯ জুন তিন হাজার ৩১৯ জনের শনাক্ত হওয়ার কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর।

শনাক্ত হওয়া তিন হাজার ৫২৫ জনকে নিয়ে দেশে করোনা আক্রান্ত রোগী মোট শনাক্ত হলেন ১৪ লাখ ৮৬ হাজার ১৫৩ জন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, একই সময়ে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১১৭ জন। তাদের নিয়ে দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে সরকারি হিসাবে মারা গেলেন মোট ২৫ হাজার ৮৪৬ জন।

একদিনে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ছয় হাজার ৪৮৫ জন। এদের নিয়ে দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ হলেন ১৪ লাখ চার হাজার ৩৭০ জন।

দেশে করোনায় এখন পর্যন্ত রোগী শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৮৬ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৪ দশমিক ৫০ শতাংশ আর মৃত্যুর হার এক দশমিক ৭৪ শতাংশ।

একই সময়ে করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ২৭ হাজার ২৯৪টি আর পরীক্ষা হয়েছে ২৭ হাজার ৫৭৮টি।

দেশে এখন পর্যন্ত করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৮৮ লাখ ১৬ হাজার ৩৪৩টি। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৬৫ লাখ ৩২ হাজার ৯২৬টি আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২২ লাখ ৮৩ হাজার ৪১৭টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ১১৭ জনের মধ্যে পুরুষ ৪৫ জন আর নারী ৬১ জন। দেশে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে মোট পুরুষ মারা গেলেন ১৬ হাজার ৮১৬ জন আর নারী নয় হাজার ৩০ জন।

এদের মধ্যে বয়স বিবেচনায় ৯১ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে রয়েছেন তিন জন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ১৬ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৩৮ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৯ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ১৬ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে নয় জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে তিন জন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন আর শূন্য থেকে ১০ বছরের মধ্যে মারা গেছে একজন।

মারা যাওয়া ১১৭ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের আছেন ৪০ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৩৭ জন, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের চার জন করে, খুলনা বিভাগের ১১ জন, বরিশাল বিভাগের ছয় জন, সিলেট বিভাগের ১০ জন আর রংপুর বিভাগের পাঁচ জন।

এই ১১৭ জনের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ৯২ জন, বেসরকারি হাসপাতালে ১৮ জন আর বাড়িতে সাত জন।

Posted by: | Posted on: August 27, 2021

৩০ লাখ মডার্নার টিকা দেওয়া শেষ

২ কোটি ৭২ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে।।মজুত এক কোটি ১৬ লাখ

শাফিউল বাশারঃ

দেশে এখন পর্যন্ত টিকা এসেছে ৩ কোটি ১৭ লাখ ২৫ হাজার ১৬০ ডোজ। এরমধ্যে ২ কোটি ৫২ লাখ ৫৮ হাজার ৫১৯ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ এই মুহূর্তে ৬৪ লাখ ৬৬ হাজার ৬৪১ ডোজ টিকা মজুত আছে। এরমধ্যে প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ১ কোটি ৭৮ লাখ ২৮ হাজার ৩০২ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ৭৪ লাখ ৩০ হাজার ২১৭ জন। এগুলো দেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকা, চীনের তৈরি সিনোফার্ম, ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিন। বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের দেওয়া তথ্যমতে, আজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ পেয়েছেন ৯২৯ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ২২ হাজার ৪৫৭ জন। এখন পর্যন্ত অ্যাস্ট্রাজেনেকা দেওয়া হয়েছে ১ কোটি ১১ লাখ ২২ হাজার ২২ ডোজ।

পাশাপাশি আজ ফাইজারের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৪৭ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ২৯৭ জন। আর এখন পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে ৯৫ হাজার ৬৭১ ডোজ।

এছাড়া ১ কোটি ৯ লাখ ৯৭ হাজার ৯৯ ডোজ সিনোফার্মের ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে এখন পর্যন্ত। এরমধ্যে আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন দুই লাখ ৭১ হাজার ২৭৯ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৪৩ হাজার ৫৩৮ জন।

মডার্নার টিকা এখন পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে ৩০ লাখ ৪৩ হাজার ৭২৭ ডোজ। এরমধ্যে আজ প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ১৩ হাজার ৬৫৩ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ৬১ হাজার ৯৬১ জনকে। এদিকে এখন পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৩ কোটি ৬৮ লাখ ১৭ হাজার ৫৪৪ জন।

জা/মা