Main Menu

রাজধানীর ভাটারায় একটি মাদ্রাসার দখল নিয়ে তাবলীগ জামাতের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ

রাজধানীর ভাটারায় একটি মাদ্রাসার দখল নিয়ে তাবলীগ জামাতের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীসহ দুই গ্রুপের অন্তত ৯ জন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) রাতে ভাটারার ছোলমাইদ পশ্চিম ঢালিবাড়ি এলাকার মঈনুল মাদ্রাসায় তাবলীগ জামাতের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্দালভি ও মাওলানা জুবায়ের আহমেদের সমর্থকদের মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষের পর ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশের বাড্ডা জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) এলিন চৌধুরী জানান, পরিস্থিতি তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। উভয় পক্ষকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। মাদ্রাসা এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয় পক্ষেরই কয়েকজন শিক্ষক ও শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী মঞ্জু নামে এক ব্যক্তি ওই এলাকা থেকে জানান, এ বছর মাদ্রাসাটির দখল, পাল্টা দখল নিয়ে সাদপন্থী ও জুবায়েরপন্থীদের মধ্যে উত্তেজনা শুরু হয়। এতদিন মাদ্রাসাটি জুবায়েরপন্থীদের কাছে ছিল। মঙ্গলবার রাত ৮টার পর সাদপন্থী শতাধিক ব্যক্তি মাদ্রাসাটির নিয়ন্ত্রণ নিতে যান। তখন সেখানে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং বাইরে থেকে মাদ্রাসার ভেতরে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ শুরু হয়। অপরপক্ষ মাদ্রাসা প্রাঙ্গণ থেকে তা প্রতিরোধ করে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হন।






Related News