Main Menu

শ্রমিক কল্যাণ তহবিলে ইউনিলিভার, ব্যাটবিসি ও বাংলালিংকের ১৭ কোটি

ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেড, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো এবং বাংলালিংক তাদের লভ্যাংশের নিদিষ্ট অংশ প্রায় ১৭ কোটি ৫ লাখ টাকা শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে জমা দিয়েছে। রবিবার (৬ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের হাতে তিনটি কোম্পানির প্রতিনিধিরা নিজ নিজ কোম্পানির পক্ষে গত এক বছরের তাদের কোম্পানির লভ্যাংশের নিদিষ্ট অংশের চেক হস্তান্তর করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর মানবসম্পদ বিভাগের প্রধান সাদ জসিমের নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধিদল তাদের কোম্পানির লভ্যাংশের নিদিষ্ট অংশ ৯ কোটি ১৫ লাখ ৯৯ হাজার ৫৭৫ টাকার চেক শ্রম প্রতিমন্ত্রীর নিকট হস্তান্তর করেছেন।

আন্তর্জাতিক কোম্পানি ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেডের কোম্পানি সচিব রাশেদুল কাইয়ুমের নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধিদল শ্রম প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেড এবং ইউনিলিভার কনজুমার কেয়ার এর লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ ৭ কোটি ৬৬ লাখ ৫২ হাজার ৭৫৯ ঢাকার দুটি চেক প্রতিমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন।

এছাড়া মোবাইল কোম্পানি বাংলালিংক এর স্টেক হোল্ডার রিলেশনস-এর প্রধান হাসিনুল কুদ্দুসের নেতৃত্বে তিন সদস্যের প্রতিনিধিদল তাদের কোম্পানির গত এক বছরের লভ্যাংশের নিদিষ্ট অংশে ২২ লাখ ২৩ হাজার ৯২৯ টাকার চেক প্রতিমন্ত্রীর নিকট হস্তান্তর করেন।

বাংলাদেশ শ্রম আইন অনুযায়ী, দেশি-বিদেশি কোম্পানি/প্রতিষ্ঠানের বছর শেষে মোট লাভের ৫ ভাগের এক দশমাংশ শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে জমা দেওয়ার বিধান রয়েছে। এই তহবিল থেকে প্রতিষ্ঠানিক-অপ্রতিষ্ঠানিক খাতের শ্রমিকদের সহায়তা করা হয়। আজ পর্যন্ত এই তহবিলে প্রায় ৪৬০ কোটি টাকার ওপরে জমা হয়েছে।

চেক গ্রহণ অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আব্দুস সালাম, অতিরিক্ত সচিব এবং বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ডা. মোল্লা জালাল উদ্দিন, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর এক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স বিভাগের প্রধান শেখ শাবাব আহমেদ, ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেড এর কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স এর প্রধান শামীমা আখতার, ইউনিলিভার কনজুমার কোয়ার লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কেএসএম মিনহাজসহ শ্রম মন্ত্রণালয় এবং কোম্পানি তিনটির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।