Main Menu

৭৫ পরবর্তী সময়ে রাষ্ট্রীয়ভাবে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যদের চরিত্র হরণ করা হয়েছিল : দীপু মনি

 

৭৫ পরবর্তী সময়ে রাষ্ট্রীয়ভাবে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের প্রত্যেকটি সদস্যের চরিত্র হরণ করা হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। রবিবার (১৬ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়োজিত এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় তিনি এই মন্তব্য করেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘৭৫ পরবর্তীতে রাষ্ট্রীয়ভাবে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যের চরিত্র হরণ করা হয়েছিল, তার পরের প্রজন্ম যাতে স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে না পারে সেজন্য কয়েক দশক ধরে মিথ্যা প্রোপাগান্ডা চালানো হয়েছিল।’

বঙ্গবন্ধুর ত্যাগের বিষয়টি উল্লেখ করে দীপু মনি বলেন, ‘শোষণ, বঞ্চনা ও বৈষম্যহীন বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার জীবনের ৩০ শতাংশ সময় কারাগারে কাটিয়েছিলেন। সেই মহান নেতাকে সপরিবারে হত্যা করে নির্বংশ করার ষড়যন্ত্র যারা করেছিল পরবর্তীতে রাষ্ট্রীয়ভাবে জনগণের টাকায় তাদের বিদেশি গুরুত্বপূর্ণ মিশনে নিযুক্ত করা হয়েছিল।’

এসময় উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কারিগরি ও প্রকৌশলী শিক্ষাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছিলেন। তাই তিনি শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় আইনে স্বায়ত্তশাসন দিয়েছিলেন।’

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সত্যপ্রসাদ মজুমদারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং বিভিন্ন অনুষদের ডিনরা যুক্ত ছিলেন।






Related News