Main Menu

চীনের ‘শ্রেষ্ঠ কবি’ এ্যাওয়ার্ড পেলেন ঢাবি উপ উপাচার্য কবি অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ

শাফিউল বাশারঃ চীনের সাহিত্যভিত্তিক তিনটি প্রতিষ্ঠান ঘোষিত দ্য প্রাইজেস ২০১৮: দ্য ইন্টারন্যাশনাল বেস্ট পোয়েট’ বা ‘আন্তর্জাতিক শ্রেষ্ঠ কবি’ মনোনীত হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ও বিশিষ্ট কবি অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ।

শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কার্যালয়ে আইপিটিআরসির প্রতিনিধি চীনের ইলেকট্রনিক সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ইউনিভার্সিটির শিক্ষক মিজ ইন শিয়াওহুয়া ২০১৮ সালের সেরা কবির পুরস্কারটি কবি মুহাম্মদ সামাদের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেন। এ সময় মিজ ইন শিয়াওহুয়ার সঙ্গে তার স্বামী ও একই বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএইচডি গবেষক আলতাফ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

কাব্য সাহিত্যে অবদানের জন্য দেশটির ‘ইন্টারন্যাশনাল পোয়েট্রি ট্রান্সলেশন অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টার (আইপিটিআরসি), গ্রিক একাডেমি অব আর্টস অ্যান্ড লেটারস এবং দ্য জার্নাল অব দ্য ওয়ার্ল্ড পোয়েটস কোয়ার্টারলি কবি মুহাম্মদ সামাদসহ বিভিন্ন দেশের আরো দশজন কবিকে ‘বেস্ট পোয়েট’ মনোনীত করেছে।

মুহাম্মদ সামাদ বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের একজন প্রতিভাবান ও জনপ্রিয় কবি। তার কবিতা ইংরেজি, চীনা, গ্রিক, সুইডিশ, সার্বিয়ান, হিন্দি, সিনহালি প্রভৃতি ভাষায় অনূদিত হয়েছে। কাব্যক্ষেত্রে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য তিনি সিটি আনন্দ-আলো পুরস্কার, সৈয়দ মুজতবা আলী সাহিত্য পুরস্কার, কবি সুকান্ত সাহিত্য পুরস্কার, কবি জীবনানন্দ দাশ পুরস্কার, কবি জসীম উদ্দীন সাহিত্য পুরস্কার, ত্রিভুজ সাহিত্য পুরস্কার, কবি বিষ্ণু দে পুরস্কার, কবিতালাপ পুরস্কারসহ অনেক সম্মাননা লাভ করেন।

মুহাম্মদ সামাদের জন্ম ১৯৫৬ সালে তৎকালীন ময়মনসিংহ জেলার জামালপুরে। তিনি জাতীয় কবিতা পরিষদের সভাপতি। তার উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ হচ্ছে-আমি তোমাদের কবি; আমার দু’চোখ জলে ভরে যায়; আজ শরতের আকাশে পূর্ণিমা; চলো, তুমুল বৃষ্টিতে ভিজি; পোড়াবে চন্দন কাঠ; আমি নই ইন্দ্রজিৎ মেঘের আড়ালে; একজন রাজনৈতিক নেতার মেনিফেস্টো; প্রেমের কবিতা; কবিতাসংগ্রহ ও সিলেক্টেড পোয়েমস প্রভৃতি।






Related News