dil

Posted by: | Posted on: August 16, 2021

ছেচল্লিশ বছর আগে আজকের দিনেই বাংলাদেশের জাতির পিতা ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করেছিল ঘাতকরা। কিন্তু সুপরিকল্পিত সেই হত্যাকাণ্ডের জন্য ১৫ আগস্ট তারিখটা বেছে নেওয়া নিছকই কোনও ঘটনা নয় বলে ভারতের সাবেক সামরিক ও কূটনীতিক কর্মকর্তাদের দৃঢ় বিশ্বাস।

জাতি হিসেবে ভারতীয়দের সবচেয়ে আনন্দের ও গৌরবের দিন দেশের স্বাধীনতা দিবস, ১৫ আগস্ট। সেই দিনটিকেই বাংলাদেশের সবচেয়ে শোকাবহ দিবসে পরিণত করার মধ্যে একটা ষড়যন্ত্র ও ভূ-রাজনৈতিক বার্তা অবশ্যই ছিল বলে সরাসরি জানাচ্ছেন তারা।

যেমন, এদেরই একজন বীর চক্র খেতাবে ভূষিত ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাবেক কর্নেল অশোক তারা। একাত্তরের ১৭ জানুয়ারি ধানমন্ডিতে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর কব্জায় থাকা বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যদের প্রায় একার হাতে উদ্ধার করেছিলেন এই সেনা কর্মকর্তা। কয়েক মাসের শিশুপুত্র জয়কে কোলে নিয়ে শেখ হাসিনাও ছিলেন তার মধ্যে— পরে প্রধানমন্ত্রী হাসিনার সরকার কর্নেল তারাকে মুক্তিযুদ্ধের সম্মাননাতেও ভূষিত করেছে।

সেই কর্নেল তারা এদিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলছিলেন, ‘এমনি এমনি তো ১৫ আগস্ট তারিখটা বেছে নেওয়া হয়নি। আজ এত বছর পরেও নিঃসন্দেহে বাংলাদেশের জন্য ওই দিনটি সবচেয়ে শোকের দিন। কয়েকজন মৌলবাদী ও ক্ষমতালিপ্সু লোক সেদিন মানবতাকে হত্যা করেছিল বলে আমি মনে করি।’

‘বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার স্বপ্নকে ধূলিস্যাৎ করার মধ্যে দিয়ে তারা প্রতিবেশী ভারতকেও একটা বার্তা দিতে চেয়েছিল— তোমাদের স্বাধীনতা দিবসেই বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের মূর্ত প্রতীককে হত্যা করা হলো।’