1-32

শুধু কলকাতাতেই দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়ে গেছে। মহানগরীতে বুধবার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা যেখানে ৫৪০ ছিল, গত ২৪ ঘণ্টায় তা দ্বিগুণের বেশি বাড়ল। রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার এক ধাক্কায় বেড়ে সাড়ে পাঁচ শতাংশের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তর প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২ হাজার ১২৮ জন। মহানগরীতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৯০ জন। দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যার বিচারে জেলা ভিত্তিক তালিকায় শীর্ষে কলকাতা রয়েছে। তার পরেই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। বুধবার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা উত্তর পরগনায় দেড়শোর কাছাকাছি ছিল। বৃহস্পতিবার তা বেড়ে ৩০০ পার। কলকাতা সংলগ্ন হাওড়া, হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনাতেও লাফিয়ে বাড়ল নতুন সংক্রমিতের সংখ্যা। ১০০-র গণ্ডি ছাড়িয়ে হাওড়া ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় দৈনিক আক্রান্ত দাঁড়াল যথাক্রমে ১৫৮ ও ১০৬। হুগলিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৯১ জন। পশ্চিম বর্ধমানে বুধবার যেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৭ জন, গত ২৪ ঘণ্টায় তা বেড়ে দাঁড়াল ১২১। উত্তরবঙ্গের মালদহ, দক্ষিণ দিনাজপুর এবং দার্জিলিঙেও এক লাফে অনেকটা বেড়ে নতুন আক্রান্ত।

ওমিক্রম নিয়ে উদ্বেগ রাজ্যেও বাড়ছে। বুধবারই রাজ্যে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা ১১ ছুঁয়েছিল। বৃহস্পতিবার রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তর প্রকাশিত বুলেটিনে ওমিক্রন আক্রান্তের উল্লেখ না থাকায় গত ২৪ ঘণ্টায় কত জন কোভিডের নতুন রূপে আক্রান্ত হয়েছেন, সে ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি।

আরও পড়ুন: দেশে করোনায় মৃত্যু এক লাফে ৭ গুণ বাড়ল

শেষ ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে কোভিডে মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের। এর মধ্যে কলকাতায় মৃত্যু হয়েছে চার জনের। হুগলি এবং উত্তর ২৪ পরগনায় দু’জন করে রোগীর মৃত্যু হয়েছে। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত কোভিডে মৃত্যু হয়েছে ১৯ হাজার ৭৫৭ জনের। বৃহস্পতিবার রাজ্যে সংক্রমণমুক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৬৭ জন।

বুধবার রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার ছিল ২.৮৪ শতাংশ। বৃহস্পতিবার তা এক লাফে বেড়ে হয়েছে ৫.৪৭ শতাংশ। এ দিন কোভিড পরীক্ষা হয়েছে ৩৮ হাজার ৮৯৮ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় সক্রিয় রোগীর সংখ্যা এক ধাক্কায় ৭ হাজার ৭২৭ থেকে বেড়ে হলো ৮ হাজার ৭৭৬। কলকাতাতেও সক্রিয় রোগী বেড়ে দাঁড়াল ৩ হাজার ৫৯৫। উত্তর ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি এবং পশ্চিম বর্ধমানেও বেড়েছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা।