31 final1111

 শাফিউল বাশারঃ ড. কলিমউল্লাহ বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ঐন্দ্রজালিক ক্ষমতা নিয়ে জাতির দিগন্তে আবির্ভূত হয়েছিলেন। সোমবার, মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষ্যে জানিপপ কর্তৃক আয়োজিত বর্ষকালব্যপী জুম ওয়েবিনারে আলোচনা সভার ১৮৩তম পর্বে সভাপতির বক্তব্যদান কালে ড. কলিমউল্লাহ একথা বলেন।      

জানিপপ-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন ইউএন ডিজএ্যাবিলিটি রাইটস্ চ্যাম্পিয়ন আবদুস সাত্তার দুলাল এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন নীলফামারীর জলঢাকা থেকে পিএইচডি গবেষক ফাতেমা-তুজ-জোহরা লিমা,ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষক কাজী ফারজানা ইয়াসমিন ও ছোলমাইদ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক আফরোজা বেগম নীলা।  

সভায় গেস্ট অব অনার হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন রংপুর মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোসাঃ আর্জিনা খানম এবং মুখ্য আলোচক হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও বঙ্গবন্ধু গবেষক ড. জেবউননেছা ।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আব্দুস সাত্তার দুলাল বলেন,বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বরণের পর নাগরিক স্বার্থরক্ষার কোন নেতৃত্ব বা রাজনীতি এ দেশে এখনো হয়নি। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের অনুসারী দলের একজন সদস্য হয়েও শিক্ষামন্ত্রীর সাম্প্রতিক কৃতকর্ম জাতিকে হতাশ করেছে।   

আর্জিনা খানম বলেন,শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জাতির পিতার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশ্বাসের অমর্যাদা করেছেন। দলের আদর্শের পরিপন্থী কাজ করে তৃণমূলের ত্যাগী নেতা-কর্মীর ললাটে কালিমা লেপন করেছেন। এত কিছুর পরেও তিনি স্বপদে বহাল থেকে আমাদেরকে অবাক করেছেন। আর্জিনা খানম বঙ্গবন্ধুর আদর্শ তুলে ধরে বলেন, কোনক্রমেই  শিক্ষামন্ত্রীর পদে বহাল থাকার সুযোগ নেই। তিনি শিক্ষামন্ত্রীর আশু পদত্যাগ দাবি করেন।

ড. জেবউননেছা বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিস্তর গবেষণার পরিসর রয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গবেষণার কাজ ত্বরান্বিত করার জন্য অনুকূল পরিবেশ তৈরি করতে হবে।সম্প্রতি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পরিপন্থী মূলক কর্মকাণ্ড ব্যাপক উন্নয়নের সফলতাকে ম্লান করে দিচ্ছে বলেও তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।  

আফরোজা বেগম নীলা বলেন, যারা জাতির দিকনির্দেশনার জন্য পরামর্শ দিতে এগিয়ে আসেন এবং গঠনমূলক সমালোচনা করেন তাদের কপালে কালিমার তিলক এঁকে দেয়ার পুরনো প্রবণতা এখনো বিদ্যমান। এই প্রবণতা দূর করতে হবে।    

ফাতেমা-তুজ জোহরা লিমা বলেন, কত ত্যাগ স্বীকার করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন , অথচ জনগণের এর সুফল পাওয়ার পথে শিক্ষামন্ত্রীর মতো কতিপয় নেতা বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। সময় এসেছে এদেরকে চিহ্নিত করে উপড়ে ফেলে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলার।

দিপু সিদ্দীকী বলেন,বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলার পরিপন্থী যে কোন  কর্মকাণ্ডকে সমন্বিতভাবে বাধা দিতে হবে।তিনি শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করে বলেন,নবনির্মিত চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়কে সর্বনাশা নদীর ভাঙন প্রবণ এলাকার পাঁচ-ছয়শ মিটার দূরত্বে স্থাপনের উদ্যোগ নিয়ে চাঁদপুরসহ মধ্য-দক্ষিণ অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্নকে মূলত মেঘনার করাল গ্রাসে নিপতিত করেছেন। যা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলার পরিপন্থী কাজ।      

সভাটি সঞ্চালনা করেন রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা এর সহযোগী অধ্যাপক,বিভাগীয় প্রধান ও ডেইলি প্রেসওয়াচ সম্পাদক দিপু সিদ্দিকী। 

এছাড়াও সভায় অন্যান্যদের মধ্যে সংযুক্ত ছিলেন সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তা ইএন রুমা ও দৈনিক কুষ্টিয়া পত্রিকার সিনিয়র সাংবাদিক হুমায়ুন কবির।