ind

প্রেস ওয়াচ ডেস্কঃ

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে সম্পর্কে অসম্মানজনক মন্তব্যের অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নারায়ণ রানে। বিজেপি নেতা রানে গত জুলাইতে নরেন্দ্র মোদির মন্ত্রিসভায় যোগ দেন। ভারতীয় সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, গত ২০ বছরের মধ্যে এবারই প্রথম ভারতের কোনও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গ্রেফতার হলেন।

উদ্ধব ঠাকরের দল শিবসেনা সেনা থেকে কংগ্রেস হয়ে ২০১৯ সালে বিজেপিতে যোগ দেন নারায়ণ রানে। সোমবার রায়গড়ে জন আশীর্বাদ যাত্রা অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে জানেন না, কোন বছর ভারত স্বাধীনতা পেয়েছিল। এটা লজ্জার বিষয়। ১৫ আগস্ট ভাষণ দেওয়ার সময় তিনি অন্যদের জিজ্ঞাসা করেন, এবার স্বাধীনতার কত বছর। আমি যদি সেখানে থাকতাম, তাহলে তাকে কষিয়ে চড় মারতাম।’

ওই মন্তব্যের জেরেই ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নারায়ন রানের বিরুদ্ধে মহারাষ্ট্রের পুণের চতুরশ্রীঙ্গি থানায় মামলা দায়ের করে যুব সেনা। এই মামলায় গ্রেফতার এড়াতে মুম্বাই উচ্চ আদালতে জরুরি শুনানির আবেদন করেন রানে। তবে আদালত সেই আবেদন প্রত্যাখ্যান করে। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই খাবার খাওয়ার সময়ই তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এই ঘটনা ঘিরে উত্তাল হয়ে উঠেছে মুম্বাই। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বাড়ির বাইরেও শুরু হয় বিক্ষোভ। পাশাপাশি তার সমর্থকেরাও জড়ো হয়। মুম্বাইয়ে তার বাড়ির সামনে মারমুখী হয়ে ওঠে বিজেপি ও শিবসেনা সমর্থকেরা।