jobb

Posted by: | Posted on: August 17, 2021

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, জাতীয় চার নেতা ও বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মূল উদ্দেশ্যই ছিলো বাংলাদেশ রাষ্ট্রকে খুন করা। বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতে তার নীতি ও আদর্শ প্রতিষ্ঠায় যাতে কেউ নেতৃত্ব দিতে না পারে সেজন্য স্ত্রী-সন্তানসহ নিকটাত্মীয় এমনকি জেলখানায় জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করা হয়। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার জন্য তাদের উদ্দেশ্য সফল হয়নি। তিনি ও তার বোন শেখ রেহানা ঘটনাচক্রে দেশের বাইরে থাকায় তারা বেঁচে যাওয়ায় পাকিস্তানি ষড়যন্ত্রকারীদের সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। পঁচাত্তরের পর ৬ বছরের শরণার্থী জীবন ও ১৯৮১ সালে দেশে ফেরার পর ১৫ বছর মরণপণ যুদ্ধ করে ২১ বছরের জঞ্জাল অপসারণ করে শেখ হাসিনার হাত ধরেই বঙ্গবন্ধু ঘোষিত অর্থনৈতিক মুক্তির সংগ্রামে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের বিস্ময়।

মন্ত্রী সোমবার (১৬ আগস্ট) ঢাকায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ডাক ও টেলিযোগাযোগ অধিদফতর আয়োজিত ভার্চুয়াল মাধ্যমের অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, সপরিবারে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য ওরা বাংলাদেশকে খুন করতে পারেনি।

টেলিযোগাযোগ অধিদফতরের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক মো. কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. আফজাল হোসেন, বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের যুগ্ম-সচিব মুহাম্মদ আবদুল হান্নান, বিটিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মো. রফিকুল মতিন, টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সাহাব উদ্দিন বক্তৃতা করেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধুকে না হারালে বাংলাদেশ অনেক আগেই সোনার বাংলায় পরিণত হতো। তারা ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের কুশীলবদের খুঁজে বের করে তাদের বিচারের আওতায় আনার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।