21

শনিবার (২৯ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ তুলেছেন টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন।

তিনি আরও বলেন, কয়েক মাস ধরে গ্যাসের চাপ কম। তার ওপর দাম বাড়ালে বন্ধ হয়ে যাবে অনেক কারখানা। গত তিন মাসেই টেক্সটাইল খাতে রফতানিতে ১৭০ কোটি ডলার লোকসান হয়েছে বলে দাবি করেন বিটিএমএ সভাপতি।

আরও পড়ুন: তীব্র গ্যাস সংকট, দুর্ভোগে রাজধানীবাসী

টেক্সটাইল খাতে সারা দেশে ১৭০০ কারখানা আছে। রফতানিমুখী তৈরি পোশাক শিল্পের সহায়ক শিল্প হিসেবে যোগান দিয়ে যাচ্ছে এসব কারখানা। কিন্তু প্রয়োজনীয় গ্যাসের চাপ না থাকায় এগুলোর উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে মারাত্মকভাবে। বলেন তিনি।

২০১৩ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে। কিন্তু বাড়েনি সেবার মান। সংকট কাটানোর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন না করে উপরন্তু চরম অসহযোগিতার অভিযোগ উঠে আসে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান তিতাসের বিরুদ্ধে।

উৎপাদন খরচের ২৫ শতাংশ ব্যয় হয় গ্যাসের বিল দিতে। এ অবস্থায় আবারও গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হলে টিকে থাকতে পারবে না অনেক কারখানা। দাম নির্ধারণের ক্ষেত্রে একটি জ্বালানি নীতি করার দাবি জানান তিনি।

শুধু আমদানি নির্ভরতা না বাড়িয়ে অভ্যন্তরীণ উৎস কাজে লাগানো ও যানবাহনে গ্যাসের ব্যবহার কমিয়ে শিল্পকারখানায় সরবরাহ বাড়ানোর দাবি জানান বিটিএমএ সভাপতি।
এছাড়াও সার কারখানায় গ্যাস বন্ধ করা এবং বস্ত্র ও পোশাক খাতের জন্য স্বতন্ত্র একটি জ্বালানি নীতিসহ আরও বেশ কয়েকটি প্রস্তাব দিয়েছে বিটিএমএ।

আরও পড়ুন: তিতাস কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করেই অবৈধ সংযোগ, দায় নেবে না হাউজিং

গ্যাস সঞ্চালন এবং বিতরণ ব্যবস্থাপনায় রাষ্ট্রীয় সংস্থা তিতাসের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরে বিটিএমএ। রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন বিটিএমএ সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন, সহ-সভাপতি ফজলুল হক, আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ।