alm

আলমগীর বলেন, মিশা-জায়েদ প্যানেলের সাংগঠনিক সম্পাদককে দেখলাম ফাইল তুলে দেখাচ্ছেন আর বলছেন, ‘দেখুন এখানে আলমগীর ভাইদের স্বাক্ষর আছে। আমি ওই ফাইলটা একটু দেখতে চাই। তারা ফটোকপির মতো কিছু একটা হয়তো করেছে, আমি এখনও জানি না কী করেছে। আর আমি এটার জন্য ওদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি কেস করবো।’

আলমগীর আরও বলেন, ‘ওরা সব সময় নাকি আমাদের প্রশাসনের ভয় দেখায়। অনেক সময় অনেক বাজে কথা বলে, অনেক মিথ্যা কথা বলে। এবার বোধ হয় একটু ভুল করেছে। আমি উজ্জ্বল (নায়ক উজ্জ্বল) ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলেছি, একদম সিরিয়াসলি আমি এর অ্যাকশন নেব। দরকার হলে একা নেব।’

আরও পড়ুন: শিল্পীদের কাছ থেকে মারামারি কাম্য নয়: ফেরদৌস

এদিকে সম্প্রতি বাংলাদেশ শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে একের পর এক জলঘোলা হচ্ছে। দুই প্যানেলের মধ্যে চলছে পাল্টপাল্টি ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া। কয়েকদিন আগেই শিল্পী সমিতি থেকে সদস্য পদ হারানো চিত্রনায়িকার শিমুর মরদেহ উদ্ধারসহ বেশ কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে।
আরও পড়ুন:বিনাকর্তনে ছাড় পেল ‘নদীর জলে শাপলা ভাসে’

২৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক এই নির্বাচন। নির্বাচনে দুটি প্যানেল অংশ নিয়েছে।