mom

বুধবার (২৫ মে) মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের কারণে অর্থনৈতিক সংকটে পুরো বিশ্ব। এ সংকট নিরসনে মনোযোগ না দিয়ে উন্নয়নশীল দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে উন্নত দেশগুলো বেশি আগ্রহ দেখাচ্ছে বলে মনে করছে ঢাকা।

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে গত কয়েক মাসে লাগাতার প্রশ্ন তুলেছে যুক্তরাষ্ট্র। অথচ খোদ সে দেশেই বন্দুক হামলায় নাগরিক নিহতের ঘটনা তুলে ধরে, যুক্তরাষ্ট্রকে নিজেদের অভ্যন্তরীণ নীতি নিয়ে ভাবার ইঙ্গিত দিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্রে স্কুলে বন্দুক হামলায় নিহত বেড়ে ২১

মোমেন বলেন, তাদের দেশে মলে লোক মেরে ফেলে, স্কুলে লোক মেরে ফেলে। এই যে একটা অস্থিরতা, এটা খুবই দুঃখজনক। তাদের নিজেদের অভ্যন্তরীণ নীতি নিয়ে ভাবার এটাই সময়। নিজের দেশের দিকে না তাকিয়ে তারা অন্যের দেশে বেশি মনোযোগ দিচ্ছেন এবং বিভিন্ন বিষয়ে হস্তক্ষেপ করছেন। ফলে অনেক ক্ষেত্রে বিষয়গুলো বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

এদিকে ভারত প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকার উন্নয়নে আইপিইএফএ নামে নতুন অর্থনৈতিক কাঠামোয় বাংলাদেশকে অন্তর্ভুক্ত করতে আগ্রহ আছে যুক্তরাষ্ট্রের। তবে এ অর্থনৈতিক জোট সম্পর্কে এখনো স্পষ্ট কিছু জানে না ঢাকা।

তবে দেশ ও অঞ্চলের উন্নয়নের জন্য যে কোনো জোটে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে ঢাকা প্রস্তুত বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।