kas

মার্কিন কংগ্রেসে কাশ্মীর ইস্যু উত্থাপন করা আগের চেয়ে বেশি প্রয়োজনীয় হয়ে উঠেছে বলে মনে করছেন কংগ্রেসওম্যান ইলহান ওমর। খবর এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের।

গত ২০ এপ্রিল পাকিস্তান-অধিকৃত কাশ্মীরে এসেছিলেন ইলহান। আজাদ জম্মু ও কাশ্মীরের জনগণের সঙ্গে তিনি দেখা করেছেন। সেসময় তিনি তাদের দুঃখ-দুর্দশা দেখেছেন এবং ভারতকে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের দায়ে অভিযুক্ত করেছেন। কাশ্মীর ও ফিলিস্তিনের বিষয়ে ইলহানকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেছেন, এ এক অবিশ্বাস্য অভিজ্ঞতা।

দ্য ডনের খবরে বলা হয়েছে, চার দিনের এ সফরে তিনি লাহোরেও গেছেন। পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও তার উত্তরসূরি শাহবাজ শরিফ, পাকিস্তানের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির স্পিকার রাজা পারভেজ আশরাফ এবং পররাষ্ট্র দপ্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন।

ইলহান বলেন, তিনি মার্কিন কংগ্রেসে কাশ্মীর ও ফিলিস্তিন নিয়ে সব সময় প্রশ্ন তোলেন। কিন্তু কখনো স্থানগুলো পরিদর্শন করা হয়নি। কাশ্মীর সফরে এসে সেখানকার লোকদের সঙ্গে কথা বলা ভয়ংকর ছিল।

মুসলিম নারী মার্কিন কংগ্রেস সদস্য বলেন, আমি সোমালিয়ায় জন্ম গ্রহণ করেছিলাম। এরপর বেসামরিক যুদ্ধের কারণে দেশ ছেড়ে পালাতে হয়েছিল। তারপর আমরা যুক্তরাষ্ট্রে চলে আসি।

তিনি আরও বলেন, আমি জুলুম ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনার সঙ্গে ছোট থেকেই পরিচিত। এ কারণে আমি দুর্বলদের পাশে দাঁড়ানোর শক্তি অর্জন করি।

এদিকে এনডিটিভি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে ইলহান ওমরের কাশ্মীর এলাকা সফরে ভারতের নিন্দা তুলে ধরা হয়েছে।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বলেন, তিনি (ওমর ইলহান) যদি তার দেশে বসে সংকীর্ণ রাজনীতির চর্চা করতে চান, তাহলে করুক, সেটা তার বিষয়। কিন্তু এ চর্চার কারণে আমাদের আঞ্চলিক অখণ্ডতা লঙ্ঘন করা হলে তা আমাদের বিষয় হয়ে ওঠে। বিষয়টি নিন্দনীয়।