fin

ডেস্ক) : রাশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট বৃহস্পতিবার হুশিয়ার করে দিয়ে বলেছেন, ফিনল্যান্ড বা সুইডেন ন্যাটোতে যোগ দেয়ার সীদ্ধান্ত নিলে বাল্টিক স্টেটস ও স্ক্যান্ডিনাভিয়ার কাছে রাশিয়া পরমাণু অস্ত্র মোতায়েন করবে। খবর এএফপি’র।
রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের ডেপুটি চেয়ারম্যান ও ২০০৮ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত দেশটির প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনকারী মেদভেদেভ টেলিগ্রাম বার্তায় লিখেছেন, এ দুই দেশ যোগ দিলে, তাহলে ন্যাটোর সদস্যভূক্ত দেশগুলোর সাথে রাশিয়ার স্থল সীমান্ত দ্বিগুণেরও বেশি হবে।
তিনি বলেন, ‘স্বাভাবিকভাবে আমরা এ সব সীমান্তে সামরিক শক্তি জোরদার করবো।’
মেদভেদেভ বলেন, ‘এ কারণে বাল্টিক নন-নিউক্লিয়ার স্টাটাসের ব্যাপারে আর কোন আলোচনা করা সম্ভব হবে না। এ ক্ষেত্রে ভারসাম্য রক্ষা করা হবে।’
তিনি এ অঞ্চলে পরমাণু অস্ত্র মোতায়েন করবে বলে ইঙ্গিত দেন।
সাবেক এ প্রেসিডেন্ট বলেন, রাশিয়া ফিনল্যান্ড উপসাগরে তাদের স্থলবাহিনী ও আকাশ প্রতিরক্ষা বাহিনী অনেক শক্তিশালী করার পাশাপাশি তাদের গুরুত্বপূর্ণ নৌবাহিনী মোতায়েন করবে।
এ ব্যাপারে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে ক্রেমলিন মুখপাত্র দিমিত্র পেসকভ জানান, ‘এটা নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে’ এবং প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন ন্যাটোর ক্রমবর্ধমান সামরিক সম্ভাবনার কারণে ‘আমাদের পশ্চিম পাশে সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করার’ নির্দেশ দিয়েছেন।
এই সামরিক শক্তি বাড়ানোর ক্ষেত্রে পরমাণু অস্ত্র অন্তর্ভূক্ত থাকবে কি-না সে ব্যাপারে জানতে চাইলে পেসকভ বলেন, ‘আমি বলতে পারছি না। তবে এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। প্রেসিডেন্টের পৃথক এক বৈঠকে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
ফিনল্যান্ড জানায়, কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ন্যাটোর সদস্যপদের জন্য আবেদন করা হবে কি-না সে ব্যাপারে চলতি সপ্তাহে তারা সিদ্ধান্ত নিবে। এদিকে সুইডেনও ন্যাটোর সদস্যপদ পাওয়া নিয়ে আলোচনা করছে।