im

প্রেস ওয়াচ ডেস্কঃ

শাহবাজ শরিফ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে না হতেই দেশটিতে আবারো কবে নাগাদ নির্বাচন হবে তা নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা। সেই আলোচনাকে আরেকটু জোরাল করলেন সদ্য পদ হারানো প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এক টুইট বার্তায় পাকিস্তানে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন ইমরান।

তিনি বলেছেন, নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণ কাকে তাদের নেতা হিসেবে দেখতে চায় সেই সীদ্ধান্ত তাদের দিতে হবে।

অপর একটি টুইটে বুধবার (১৩ এপ্রিল) সমাবেশের ডাক দিয়েছেন বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী। পাকিস্তান নিয়ে বিদেশি যে ষড়যন্ত্র হচ্ছে তা প্রতিহত এবং নিজেদের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করতে সমাবেশে উপস্থিত থাকতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান ইমরান।

এদিকে শাহবাজ প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই গুঞ্জন উঠেছে ঈদের পরই লন্ডন থেকে দেশে ফিরছেন তিন বারের প্রধানমন্ত্রী ও তার ভাই নওয়াজ শরিফ। পাকিস্তান মুসলিম লিগ নওয়াজের অনেক নেতাও বিষয়টি নিশ্চিত করেন। 

তবে সংবাদমাধ্যম ডনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে দলটির জ্যেষ্ঠ নেতারা বলছেন, এখনই দেশে ফিরবেন না নওয়াজ। তার দেশে ফেরাকে জনগণ নেতিবাচক হিসেবে দেখতে পারে বলেও জানান অনেকে।

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিতের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই বার্তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জেন সাকি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র সব সময় একটি গণতান্ত্রিক পাকিস্তান দেখতে চায়। দেশটির সঙ্গে সম্পর্ক আরও মজবুত হবে বলেও জানান সাকি।

নানা নাটকীয়তার পর অনাস্থা ভোটে নিজের পদ হারান ইমরান। তবে এর পেছনে যুক্তরাষ্ট্রের হাত রয়েছে বলে দাবি তার।