vc

: দেশের জনসাধারণের সেবা নিশ্চিত করতে স্বাস্থ্যবীমা চালুর উপর গুরুত্বারোপ করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ।
আজ ‘সুরক্ষিত বিশ্ব, নিশ্চিত স¦াস্থ্য’ এই প্রতিপাদ্যকে নিয়ে বিএসএমএমইউ ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস -২০২২’ উপলক্ষে আয়োজিত শোভাযাত্রায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এই বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন তিনি।
উপাচার্য বলেন, আমাদের দেশে এখনো হার্ড টু রিচ এড়িয়া অর্থাৎ যে দুর্গম এলাকা রয়েছে, সেখানে রোগীর চিকিৎসায় এয়ার এম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন। এ সমস্ত জায়গায় যারা চিকিৎসা সেবা দেবেন; তাদের জন্য ইনসেনটিভ দেবার ব্যবস্থা করতে হবে।
দেশে আরো বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক বাড়ানোর তাগিদ দিয়ে উপাচার্য বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে প্রতি লাখে একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক থাকা প্রয়োজন। কিন্তু আমাদের দেশে অনেক বিষয়ে সে সংখ্যক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নেই। এ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক তৈরির প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমরা ইতোমধ্যে বিভিন্ন বিষয়ের কোর্সে শিক্ষার্থীদের আসন সংখ্যা বৃদ্ধিসহ নানা পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।
উপাচার্য বলেন,‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় অত্যন্ত দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। করোনা প্রতিরোধ ব্যবস্থাপনায় তিনি দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম এবং সারাবিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান ২৬তম। আমরা একদিনে ১ কোটি ২০ লাখ লোককে ভ্যাকসিন দেবার সক্ষমতা অর্জন করেছি। এজন্য প্রধানমন্ত্রী সত্যিকার অর্থেই ভ্যাকসিন হিরো।’
শোভাযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, সার্জারি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হোসেন, ডেন্টাল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আলী আসগর মোড়ল, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবুর রহমান দুলাল, বিশ্ববিদ্যালয়ের ককলিয়ার ইমপ্লান্ট প্রকল্প পরিচালক অধ্যাপক ডা. এএইচ এম জহিরুল হক (সাচ্চু), স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য সচিব সহযোগী অধ্যাপক ডা. আরিফুল ইসলাম জোয়ারদার টিটো, সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. বিদ্যুৎ চন্দ্র দেবনাথ, উপাচার্যের একান্ত সচিব-১ সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. রাসেল, মানসিক রোগ বিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. ফাতেমা জোহুরা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।