rus

প্রেস ওয়াচ ডেস্ক : রাশিয়ায় কে ক্ষমতায় থাকবে সে সিদ্ধান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন নেবেন না। এটি নেবে রাশিয়ার জনগণ।
রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন ক্ষমতায় থাকতে পারেন না -পোল্যান্ডের রাজধানী ওয়ারশতে রাশিয়ার জনগণের উদ্দেশে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মন্তব্যের পর ক্রেমলিন মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ এ কথা বলেন।
এ বিষয়ে তাকে প্রশ্ন করা হলে শনিবার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, এটি বাইডেনের সিদ্ধান্ত নেয়ার বিষয় নয়। রুশ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন রাশিয়ার জনগণের দ্বারা।
এদিকে হোয়াইট হাউসের এক কর্মকর্তা বলেছেন, বাইডেন শাসনক্ষমতা পরিবর্তনের আহ্বান জানাননি। তিনি বলতে চেয়েছেন, পুতিনকে তাঁর প্রতিবেশী দেশ বা অঞ্চলের ওপর ক্ষমতা প্রয়োগ করতে দেয়া যাবে না।
বাইডেন ওয়ারশতে ইউক্রেন সরকারের মন্ত্রী ও পোল্যান্ডে সীমান্ত পেরিয়ে আসা শরণার্থীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। ইউক্রেনের শরণার্থীদের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় বাইডেনকে সাংবাদিকেরা জিজ্ঞাসা করেন, ‘আপনি প্রতিদিন ভøাদিমির পুতিনের কর্মকান্ডের ওপর নজর রাখেন। খেয়াল করেন, তিনি এই মানুষগুলোর (শরণার্থী) সঙ্গে কী করছেন। আপনি কী ভাবছেন ? জবাবে বাইডেন বলেন, ‘তিনি (পুতিন) একটা কসাই।’
জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, রুশ হামলা শুরুর পর থেকে ইউক্রেন ছেড়েছেন ৩৫ লাখের বেশি মানুষ। তাঁদের বেশির ভাগই আশ্রয় নিয়েছেন ইউক্রেনের পশ্চিমে প্রতিবেশী দেশগুলোতে।
ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, রুশ বাহিনীর ওপর শক্তিশালী আঘাত হেনেছে ইউক্রেনের সেনারা। এতে রুশ বাহিনীর উল্লেখযোগ্য ক্ষতি হয়েছে।
তবে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাতে স্পুতনিক নিউজ বলছে, রাশিয়ার স্বল্প পাল্লার ইস্কান্দার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করে ইউক্রেনের বাক নামের আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা ধ্বংস করা হয়েছে। রুশ সেনারা আরও সামনে এগিয়েছে। দোনেৎস্ক ও লুহানস্কের সশস্ত্র বাহিনী ওই অঞ্চলের পুনর্নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। এ ছাড়া মারিওপোলে লড়াই চলছে।
স্পুতনিক আরও বলেছে, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি দনবাসে আট বছর ধরে চলা যুদ্ধ বন্ধ করার লক্ষ্যে অভিযান শুরু করে রুশ বাহিনী।
প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন জোর দিয়ে বলেছেন, দখল নয়, রাশিয়ার লক্ষ্য ইউক্রেনকে নিরস্ত্রীকরণ ও নাৎসিমুক্ত করা।