21jjja

                                                

                            

প্রেস ওয়াচ রিপোর্টঃ  সোমবার সন্ধ্যায় মুজিব শতবর্ষ এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’র ১০২তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে জানিপপ কর্তৃক আয়োজিত বর্ষকালব্যপী জুম ওয়েবিনারে এক বিশেষ্ আলোচনা সভার ২৩০তম পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।                             

জানিপপ-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর ড.মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন ভারতের টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব ও কলামিস্ট পিনাকী ভট্টাচার্য বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন শিক্ষা ক্যাডারের সহযোগী অধ্যাপক ও বঙ্গবন্ধু গবেষক আবু সালেক খান,নীলফামারীর জলঢাকা থেকে পিএইচডি গবেষক ফাতেমা তুজ-জোহরা লিমা ও ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক কাজী ফারজানা ইয়াসমিন। 

সভায় গেস্ট অব অনার হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন রংপুর মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোসাঃ আর্জিনা খানম এবং মুখ্য আলোচক হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন অস্ট্রেলিয়া থেকে ওয়েস্টার্ন সিডনি ইউনিভার্সিটির ফেলো ড.তানভীর ফিত্তীণ আবীর।

সভাপতির বক্তৃতায় ড. কলিমউল্লাহ বলেন,বঙ্গবন্ধু কঠোর হস্তে চোরাকারবার প্রচেষ্টা দমন করেছিলেন।

পিনাকী ভট্টাচার্য  বলেন,বঙ্গবন্ধু জীবনব্যাপী একটিই সাধনা করেছেন, তা হল বাঙালির মুক্তির জন্য নিজকে উৎসর্গ করা।

গবেষক আবু সালেক খান বলেন,  একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা সর্বকালেই মুক্তিযোদ্ধা, একজন মুক্তিযোদ্ধা কখনো কক্ষচ্যুত হয়ে রাজাকার হন না। কিন্তু একজন রাজাকার নিজ স্বার্থ হাসিল করতে মুক্তিযোদ্ধার রূপ ধারণ করতে পারে।    

ড.আবীর বলেন,বাঙালির জাতীয় মুক্তিসংগ্রামের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর নাম একাকার হয়ে আছে।    

প্রশান্ত কুমার সরকার বলেন,স্বাধীনতার পর যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে যুদ্ধ ফেরত বিপুলসংখক তরুন মুক্তিযোদ্ধাদের কর্মসংস্থানের জন্য ১৯৭২ এর শুরুতে “জাতীয় রক্ষীবাহিনী” গঠিত হয়। আর্মড পুলিশ এক্ট সংশোধন করে এই আধা-সামরিক বাহিনীটি গঠিত হয়। শুধুমাত্র মুক্তিযুদ্ধ ফেরত বেকার তরুনদের কর্মসংস্থানের জন্যই মিলিশিয়া রক্ষী ‘রক্ষীবাহিনী’ গঠিত হয় নি। প্রধান কারনটি ছিল ‘৭১এ পাকিস্থানিরা  এবং ‘৭২ এর শুরুতে সকল ভারতীয় সৈন্য চলে যাওয়ার পর একটা বাহিনী শুন্যতার শৃষ্টি হয়। যুদ্ধশেষে অনেকেই অস্ত্র জমা না দেয়ায় একটা বিপদজনক অবস্থারও শৃষ্টি হয়।তাই এধরনের বাহিনী গঠন জরুরি হয়ে পড়ে।রক্ষীবাহিনীর সিলেক্সান খুবই দক্ষ হয়েছিল, তাদের সুশৃক্ষল ভাবমুর্তি সেনাবাহিনীতে যুক্ত হওয়ার পরও অটুট ছিল।  

দিপু সিদ্দিকী বলেন,মৃত্যুকূপ থেকে মুক্তমানব হয়ে বেরিয়ে এসে সর্বজনীন ভোটাধিকারের দাবি আদায় ও সংখ্যাগুরুর অধিকার আদায় এবং ’৭০-এর ঐতিহাসিক নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে ভূমিধ্বস বিজয় অর্জন ও পরিশেষে ’৭১-এ স্বাধীনতার ডাক দিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীন ও সার্বভৌম গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করেন বঙ্গবন্ধু।    

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য প্রদান করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ এর বঙ্গবন্ধু ইনস্টিটিউট অব লিবারেশন ওয়ার এন্ড বাংলাদেশ স্টাডিজ এর অধীনে পিএইচডি গবেষণারত প্রশান্ত কুমার সরকার।  

সভায় বক্তারা ‘পলীবন্ধু পদকে’ ভূষিত হওয়ায় জানিপপ-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর ড.মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও’কে অভিনন্দন জানান এবং তাঁর সুস্বাস্থ্য, দীর্ঘায়ু ও কর্মমুখর জীবন কামনা করেন। বক্তারা আরো বলেন,শিক্ষাক্ষেত্রে অসামান্য অবদান রাখার জন্য ২০২১ সালে ‘পলীবন্ধু পদকে’ভূষিত হওয়ায় আমরা আনন্দিত ও গবির্ত। বক্তারা প্রফেসর ড.মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও’কে স্বাধীনতা পদকে ভূষিত করার জন্য সরকারের নিকট জোর দাবী জানান।

সভাটি সঞ্চালনা করেন রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা’র সহযোগী অধ্যাপক,বিভাগীয় প্রধান ও ডেইলি প্রেসওয়াচ সম্পাদক দিপু সিদ্দিকী।  

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে সংযুক্ত ছিলেন সভায় অন্যান্যদের মধ্যে সংযুক্ত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত প্রকৌশলী শাফিউল বাশার ,সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তা ইএন রুমা এবং রাজশাহী থেকে ডা.মনোয়ার।