presi

: রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ শিক্ষা যাতে কোনোভাবেই সার্টিফিকেট সর্বস্ব না হয় তা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
‘সার্টিফিকেট-সর্বস্ব শিক্ষা নয়, নোট মুখস্থ করে পাশ নয়, আমরা চাই সৃজনশীল মানুষ হওয়ার শিক্ষা এবং কুসংস্কারমুক্ত আর খোলা মনের আলোকিত ব্যক্তিত্ব গড়ার শিক্ষা,’ বলেন রাষ্ট্রপতি।
আজ বিকেলে ‘বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি’ আয়োজিত আলোচনা সভায় বঙ্গভবন থেকে ভার্চুয়ালি দেয়া ভাষণে তিনি এ আহ্বান জানান। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে উচ্চতর শিক্ষা ও গবেষণার প্রকৃত কেন্দ্র উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বর্তমান বিশ্ব একদিকে যেমন সম্ভাবনাময় তেমনি তার চ্যালেঞ্জিং ও বটে। তাই, শিক্ষার্থীদের জন্য যুগোপযোগী ও আন্তর্জাতিক মানের পাঠক্রম অনুসরণ করতে হবে।’
রাষ্ট্রপ্রধান বলেন, আগামী দিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় দেশের তরুণ প্রজন্মকে আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত এবং দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে।
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে নির্দিষ্টসংখ্যক আসন দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য সংরক্ষণ এবং সম্ভব হলে বিনা বেতনে অধ্যায়নের সুযোগ দেয়ার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানান তিনি।
শিক্ষা খাতে বিনিয়োগে এগিয়ে আসার জন্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে মুনাফা অর্জনের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার না করার নির্দেশ দেন।
রাষ্ট্রপতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে কিছু সরকারি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাপারে নেতিবাচক কর্মকান্ডের ব্যাপারে ও বক্তব্য দেন ।
তিনি বলেন, ‘কিছু কিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিনিয়োগকে তাদের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে — নিয়ম-নীতি, অবকাঠামো, শিক্ষাসংক্রান্ত সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত না করে বছর বছর ছাত্র ভর্তি করছে আর সার্টিফিকেট বিতরণ করছে। কিন্তু, মনে রাখতে হবে বিশ্ববিদ্যালয় মুক্তবুদ্ধির চর্চা অনুশীলনের স্থান।’
বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে এ আলোচনার আয়োজন করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, বঙ্গবন্ধুর জীবন ও রাজনৈতিক দর্শন মানবতাবোধ চিন্তা-চেতনা ও নীতি-নৈতিকতাকে আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা সকল স্তরে অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে গ্রহণ কার উদ্যোগ আমাদেরকেই নিতে হবে।
অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী ডাক্তার দীপু মনি, পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিলের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, অনুষ্ঠানের সভাপতি বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন বক্তব্য রাখেন।
এছাড়া প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় কমিটির সদস্য-সচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন একেএম নুরুল ফজল বুলবুল।
অনুষ্ঠানে, ‘আমার দৃষ্টিতে দেখা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’ শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।