20 finallll

প্রেস রিলিজ :রবিবার মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষ্যে জানিপপ কর্তৃক আয়োজিত বর্ষকালব্যপী জুম ওয়েবিনারে আলোচনা সভার ২০৩তম পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।   

জানিপপ-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর ডক্টর মেজর নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ, বিএনসিসিও’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন ইউএন ডিজএ্যাবিলিটি রাইটস্ চ্যাম্পিয়ন আবদুস সাত্তার দুলাল এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন ভারতের টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব ও কলামিস্ট পিনাকী ভট্টাচার্য,শিক্ষা ক্যাডারের সহযোগী অধ্যাপক ও বঙ্গবন্ধু গবেষক আবু সালেক খান ও ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষক কাজী ফারজানা ইয়াসমিন ।

সভায় গেস্ট অব অনার হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন অস্ট্রেলিয়া থেকে ওয়েস্টার্ন সিডনি ইউনিভার্সিটির ফেলো ড. তানভীর ফিত্তীণ আবীর এবং মুখ্য আলোচক হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন কুমিল্লার চান্দিনা থেকে জনতা ব্যাংকের কর্মকর্তা খোরশেদ আলম।

সভাপতির বক্তৃতায় ড. কলিমউল্লাহ বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলা ভাষাকে ভালোবাসতেন সমস্ত হৃদয় দিয়ে ।তিনি আরো বলেন,বাংলা ভাষার উন্নতি ও বিকাশের জন্য বঙ্গবন্ধুর ভাবনা ও চিন্তা বিভিন্ন ভাষণ থেকে আমরা জানতে পারি। বাংলা ভাষার উন্নতি ও বিকাশের জন্য বঙ্গবন্ধু সবসময় সাহিত্যিক ও বুদ্ধিজীবীদের প্রেরণা দিয়েছেন- তাদের নির্ভয়ে কাজ করার সাহস জুগিয়েছেন।

আবদুস সাত্তার দুলাল বলেন, শোষিত মানুষের পক্ষে বঙ্গবন্ধুর অবস্থানের কারণে তিনি কেবল বাংলাদেশেরই নয়, বিশ্বমানুষেরই অবিসংবাদিত নেতা হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছেন।

আর্জিনা খানম বলেন,প্রকৃত প্রস্তাবে বঙ্গবন্ধু রাজনীতির মানুষ- রাজনীতি তার জীবনের ধ্যান-জ্ঞান। তিনিই বাঙালির শ্রেষ্ঠতম জাতীয়তাবাদী নেতা।

গবেষক আবু সালেক খান বলেন, ভাষা আন্দোলন ছিল আমাদের বাঙালিত্বকে বিকশিত করে তার পূর্ণতা দান করা।

পিনাকী ভট্টাচার্য বলেন,রাজনীতির মানুষ হয়েও রাজনীতির বাইরেও নানা বিষয় নিয়ে ভেবেছেন বঙ্গবন্ধু- খেলাধুলা, চলচ্চিত্র, ভাষা, সাহিত্য, সংগীত কিছুই তার চিন্তার বাইরে ছিল না।সভায় পিনাকী ভট্টাচার্য মহান একুশকে কেন্দ্র করে স্বরচিত একটি কবিতা আবৃত্তি করেন এবং কবিতাটি বাংলাদেশের জনগণকে উৎসর্গ করেন ।

খোরশেদ আলম বলেন, শোষণমুক্তির আকাঙ্ক্ষা বঙ্গবন্ধুর জাতীয়তাবাদের মূল ভিত্তি।

দিপু সিদ্দিকী বলেন, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ, প্রকৃত অর্থে, অভিন্ন ও একাত্ম।শোষক ও শোষিতের সংগ্রামে বঙ্গবন্ধু শোষিত জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে পালন করেছেন ঐতিহাসিক ভূমিকা।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য প্রদান করেন  সোলমাইদ হাই স্কুল এন্ড কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল আফরোজা বেগম নীলা ।    

সভাটি সঞ্চালনা করেন রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা’র সহযোগী অধ্যাপক,বিভাগীয় প্রধান ও ডেইলি প্রেসওয়াচ সম্পাদক দিপু সিদ্দিকী।    

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে সংযুক্ত ছিলেন সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তা ইএন রুমা।