mal

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইলি বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির নারী ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক মন্ত্রী সিতি জাইলাহ মোহাম্মদ ইউসুফ ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করে করেছেন। সেই ভিডিওতে তিনি প্রয়োজনে বউ পেটানোর পরামর্শ দেন। মালয়েশিয়াবাসীকে সংসারিক বিষয়ে পরামর্শ দিতেই তিনি ওই পরামর্শ দেন।

ওই ভিডিওতে সিতি জাইলাহ বলেন, যে সব নারী কথা শোনেন না তাদের অনুশাসন করা উচিত স্বামীর। শাসনে কাজ না হলে তিন দিন আলাদা বিছানায় শোয়া উচিত। তারপরও স্ত্রী স্বামীর বাধ্য না হলে স্ত্রীর গায়ে হাত দিতে পারেন স্বামী। অল্প মারধরও করতে পারেন।

আরও পড়ুন : সিগারেট নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে মালয়েশিয়া

তিনি বলেন, স্ত্রীকে বুঝিয়ে দেওয়া উচিত যে প্রয়োজনে তিনি কঠিন হতে পারেন।

মন্ত্রী বলেন, স্বামীর মর্জি বুঝে, তার খাওয়া-দাওয়া শেষ হওয়ার পর যখন তিনি অবসর কাটান তখন তার সঙ্গে কথা বলুন। কোনো বিষয়ে কথা বলার আগে তার অনুমতি নিন।

এদিকে, মন্ত্রীর এই ভিডিও বার্তা মুহুর্তে দেশটির সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এতে তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

আরও পড়ুন : মালয়েশিয়া প্রবাসীদের জন্য সর্বনিম্ন মজুরি নির্ধারণ

এ বিষয়ে একজন ইন্সটাগ্রাম ব্যবহারকারী লিখেছেন, ছি! আপনি একজন মন্ত্রী! এমন মন্তব্য কিভাবে করেন আপনি? আপনার পদত্যাগ করা উচিত।

তবে শুধু ইন্টারনেট ব্যবহারকারীই নয়, দেশটির নারী অধিকার ও মানবাধিকার নিয়ে কাজ করা সংগঠনগুলোও ওই ভিডিও বার্তার নিন্দা জানিয়ে মন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেছেন।